টইটং ইউপি নির্বাচনে আ. লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থীর বিরুদ্ধে আচরণ বিধি লংঘনের অভিযোগ

ছবি : ফাইল
বিজ্ঞাপন

কক্সবাজারের পেকুয়ার টইটং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আচরণ বিধি লংঘনের অভিযোগ তুলে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন স্বতন্ত্র এক প্রার্থী।

সকালে উপজেলা রিটানিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইরফান উদ্দিনের কাছে টইটং ইউপি নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সাবেক বহিস্কৃত চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম চৌধুরীর বিরুদ্ধে আচরণ বিধি লংঘন করে ভোটারদের কে ভয়ভীতি প্রদর্শন সহ নানা অভিযোগ এনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী মোহাম্মদ নুরুল আমিন বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেছেন টইটং ইউপি নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সাবেক বহিস্কৃত চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী প্রতিনিয়ত নির্বাচনী আচরণ বিধি লংঘন করেছেন। তিনি আচরণ বিধি কে কোন প্রকার তোয়াক্কা না করে বৃদ্ধ আঙুলী দেখিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের এজলাসে কর্মী সমাবেশ করে ভোটারদের কাছ থেকে এজলাসে দাড়িয়ে ভোট চাওয়া, পাড়ায় পাড়ায় ১/২ শত গজের মধ্যে একাধিক নির্বাচনী অফিস স্থাপন করে রাত জেগে মাইকিং ও বিভিন্ন গান-বাজনা করা, টইটং বাজারে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টের মাধ্যমে গান বাজনা ও নির্বাচনী চিত্র প্রদর্শন এবং প্রত্যক ওয়ার্ডে নির্বাচনী গনসংযোগের চিত্র প্রজেক্টরে প্রচার করাসহ ভোটারদের কে ভোট কেন্দ্র আসতে বাঁধা দেওয়ার জন্য ভোট ক্যাম্প স্থাপন করা, বহিরাগত লোকজনের মাধ্যমে ভোটারদের হুমকিসহ নানা অভিযোগ আনেন।

তিনি আরো অভিযোগ করেন টইটং ইউপির সচিব আব্দুল আলিম অতি উৎসাহিত হয়ে একজন চেয়ারম্যান প্রার্থীকে পরিষদের এজলাসে নির্বাচন প্রচারনা কালিন সময়ে সমাবেশ করতে অনুমতি দিয়ে সমাবেশে সহযোগিতা করছেন।

এদিকে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার আর মাত্র পাঁচ দিন বাকী থাকলেও বেশ জমে উঠছে প্রার্থীদের নিঝুম প্রচার প্রচারণা। সেই সাথে থেমে থাকেনি ভোটারদের ধারে ধারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করেছেন এবং মন জয় করতে প্রাণপন চেষ্টা করে যাচ্ছেন প্রার্থীরা। এরই মধ্যে উঠে এসে এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর বিরুদ্ধে আচরণ বিধি লংঘনসহ ভোটারদের কে ভয়ভীতিসহ নানা অভিযোগ।

আরো পড়ুন:
ধূমপায়ীয় ফুসফুস পরিষ্কারের ৪ উপায়
কালো-সোনালি ঝাঁকড়া চুলের বোলিং মালিঙ্গা, বিদায় জানালেন ক্রিকেটকে

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযোগের বাদী স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল আমিন লিখিত অভিযোগ দায়ের করার সত্যতা জানিয়ে বলেন আমি একজন চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে আমার ভোটারা ভোট দিতে সংকিত। তিনি আরো বলেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী বার বার আচরণ বিধি লংঘন করে যাচ্ছেন। ওনার এ আচরণে নির্বাচনের খারাপ পরিবেশ সৃষ্টির আশংঙ্কা করছি। তিনি ভোট কেন্দ্রে প্রভাব বিস্তার করে ভোটারদের কাছ থেকে জোর করে ভোট আদায় করবেন এমন প্রচার করে যাচ্ছে। নৌকা প্রতীকের প্রার্থী তিনি বিভিন্ন সরকারী ভবনের হলরুমে সমাবেশ করছেন। তার বিরুদ্ধে কোন রকম ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

এ বিষয়ে জানতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন এগুলো আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। ইনশাআল্লাহ আগামী ২০ তাং এ ষড়যন্ত্রের জবাব দিবে ব্যালেটের মাধ্যমে জনগন।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা রিটানিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইরফান উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা জানিয়ে বলেন আমি অভিযোগের ভিত্তিতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সেপ্টেম্বর ১৫.২০২১ at ১২:২০:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/এএজ/জআ