পেয়ারা পাতায় বাজিমাত, সিরাম ব্যবহারে চুল পড়ার সমাধান

বিজ্ঞাপন

অনেকেরই অল্প বয়সে চুল পড়ে যেতে থাকে। মানসিক চাপ বা পুষ্টিকর খাবারের অভাবের মতো কারণ তো আছেই, এ ছাড়া জিনগত কারণেও কমে যেতে পারে চুলের ঘনত্ব। দীর্ঘক্ষণ চুলের গোড়া ভিজে থাকায় আলগা হয়ে চুল ঝরে যেতে থাকে। একটি সাধারণ ঘরোয়া পদ্ধতি কাজে লাগিয়ে সহজেই বর্ষাকালে অতিরিক্ত চুল ঝরার হাত থেকে রেহাই পাওয়া সম্ভব। এর জন্য চাই মাত্র কয়েকটা পেয়ারা পাতা।

এতেও অনেকের প্রচুর চুল পড়ে গিয়েছে। কী করে এই সমস্যার সমাধান হবে?

ঘন চুল ফিরিয়ে আনার সহজ রাস্তা হতে পারে পেয়ারা পাতার ব্যবহার। এই পাতা কোলাজেন উৎপাদন করতে সাহায্য করে। আর কোলাজেনই ফিরিয়ে দিতে পারে ঘন চুল। এ জন্য শুধু বানিয়ে নিতে হবে পেয়ারা পাতার সিরাম।

কী ভাবে এই সিরাম বানাবেন? কী ভাবেই বা ব্যবহার করবেন? রইল পরামর্শ।

• প্রথমে বেশ কয়েকটি পেয়ারা পাতা জলে ফুটিয়ে নিন।

• ২০ মিনিট ফুটিয়ে নেওয়ার পরে ছেঁকে জলটি বার করে নিন।

• সেই পানি ঘরের তাপমাত্রায় ঠান্ডা করে নিন।

তৈরি হয়ে গেল পেয়ারা পাতার সিরাম। চুলের গোড়ায় এটি ব্যবহার করবেন কীভাবে?

• প্রথমেই মনে রাখতে হবে, এই সিরাম ব্যবহার করার সময়ে চুলে যেন কোনও রাসায়নিক না লেগে থাকে। অন্য রাসায়নিক সিরাম বা তেল থাকলে এটি ভাল করে কাজ করবে না।

• এই সিরাম মাথায় মাখার পরে মিনিট ১০ মাসাজ করুন।

• এর পরে ঘণ্টা খানেক রেখে দিন। খুব ভাল হয় যদি রাতে শোওয়ার আগে এটি মেখে নেওয়া যায়।

• সকালে হাল্কা গরম জল দিয়ে শ্যাম্পু করে চুল ধুয়ে নিন।

এই প্রাকৃতিক সিরাম মাস খানেক ব্যবহার করেই অনেকে ঘন চুল ফিরে পেয়েছেন। কমেছে চুল পড়া এবং পাক ধরার হারও।

আরো পড়ুন: মোবাইল ফোন ব্যবহারে ভোগান্তি বাড়ছেই

চুলের যত্নে মনে রাখা জরুরি ধুমপান বড় বড় রক্তনালীকে বন্ধ করে দেয়। আর চুলের গোড়ায় অতি সূক্ষ সূক্ষ রক্তনালী। ধুমপান করলে এই সূক্ষ রক্তনালীগুলো বন্ধ হয়ে যায়। চুলের পুষ্টি আসে রক্তের মাধ্যমে তাই রক্তনালী বন্ধ হয়ে গেলে চুল পড়ে যাবে।

গ্রামের মহিলারা সাধারণত পুষ্টির অভাবে ভুগেন। আর শহরের মেয়েরা ডায়েট কন্ট্রোলের চেষ্টা করেন। এগুলো চুল পড়ার অন্যতম কারণ। ফাস্ট ফুড, সফট ড্রিংকস খাওয়াও অন্যতম কারণ চুলপড়ার। চুলের ম্যাক্সিমামটা হলো প্রোটিন। ফ্যাট, কার্বোহাইড্রেড এবং পানি দিয়ে গঠিত।

শ্যাম্পু ঘন ঘন করলে চুল পড়ে। এটা কতটা সত্যি? চুলটা প্রোটিন দিয়ে তৈরি। আর শ্যাম্পু অ্যালকালিক বা খার দিয়ে তৈরি। ক্ষার এবং প্রোটিন একত্রিত হলে প্রোটিন ভেঙে যায়। এতে চুল গোড়া থেকে ঠিক থাকবে কিন্তু সামনের অংশ ভেঙে ভেঙে পড়বে। প্রতিদিন শ্যাম্পু করলে।

সূত্র- জিনিউজ, আনন্দবাজার