সাবেক মন্ত্রী অধ্যাপিকা জাহানারা বেগমের ইন্তেকাল

বিজ্ঞাপন

সাবেক প্রতিমন্ত্রী, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এলডিপি’র সাবেক মহাসচিব অধ্যাপিকা জাহানারা বেগম আজ শনিবার সকালে তার বসুন্দরাস্থ বাসভবনে হৃদরোগে আক্রান্ত হলে দ্রুত এভাকেয়ায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করেন (ইন্না-লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাউহে রাজিউন)।

তিনি জাতীয়তাবাদী যুব মহিলা দলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান, রাজবাড়ী-১ (সদর-গোয়ালন্দ) আসনের সাবেক সাংসদ ও সাবেক সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিন।

মৃত্যুর সংবাদ নিশ্চিত করেছেন এলডিপি মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম।

জাহানারা বেগম রাজবাড়ী জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। জাহানারা বেগম ১৭ বছর বয়সে ইডেন কলেজে ছাত্ররাজনীতিতে যুক্তহন। ১৯৫৯ সালে তিনি তৎকালীন ছাত্র ইউনিয়ন মতিয়া গ্রুপের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি হাবিবুল্লাহ বাহার কলেজের অধ্যাপিকা ছিলেন।

তিনি দুবার সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এবং তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার প্রাথমিক শিক্ষা ও গণশিক্ষা বিষয়ক উপদেষ্টা ছিলেন।

তিনি পঞ্চম জাতীয় সংসদে মহিলা আসন-২২ এর সদস্য ছিলেন। ১৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬ সালের ষষ্ঠ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের মনোনয়নে রাজবাড়ী-১ (সদর-গোয়ালন্দ) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন তিনি।

ইন্তেকালের সময় তার বয়স হয়েছিল ৭৯ বছর। এসময় দুই পুত্র ও এক কণ্যা সহ অসংখ্যগুনগ্রাহী রেখে গেছেন। আমেরিকায় অবস্থারত তার বড় ছেলে দেশে আসলে শাহজাহানপুর পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপিকা জাহানারা বেগমের ইন্তেকালে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করেছেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এলডিপি সভাপতি আবদুল করিম আব্বাসী ও মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম।

নেতৃদ্বয় মরহুমার রুহের মাগফেরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

জুলাই,২৪.২০২১ at ১৩:২৬:৪২ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/এমটি/এসআর