গাইবান্ধায় সিপিবির ৯ম জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত

বিজ্ঞাপন

গাইবান্ধায় বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) ৯ম জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। করোনা ভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন সংক্রমণের বিস্তার রোধে সরকার বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) থেকে ১১ দফা বিধিনিষেধ জারি করায় দু’দিনব্যাপি সম্মেলনের উন্মুক্ত অধিবেশন, সমাবেশ ও শোভাযাত্রা সংক্ষিপ্ত করে সীমিত পরিসরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও কাউন্সিল অধিবেশ করে দলটি।

সম্মেলন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে গণতন্ত্রহীনতা, লুটপাট এবং রাজনৈতিক সংকট থেকে মুক্তির জন্য বিকল্প রাজনৈতিক শক্তির উত্থান ঘটানোর আহ্বান জানিয়েছেন সিপিবি নেতারা।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে এগারটায় গাইবান্ধা পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে কাউন্সিল অধিবেশন শুরু হয়। এতে পার্টির জেলা, থানা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের ১৫১ জন প্রতিনিধি এবং ১৫ জন পর্যবেক্ষক অংশ নেন। এরআগে পাবলিক লাইব্রেরি চত্বরে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মেলনের উদ্বোধন করা হয়। সিপিবির গাইবান্ধা জেলা শাখার সভাপতি মিহির ঘোষ এতে সভাপতিত্ব করেন।

পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারী সাধারণ সম্পাদক কাজী সাজ্জাদ জহির চন্দন সম্মেলনের উদ্বোধন ঘোষনা করেন। এরপর রণজিত সরকারের গণসঙ্গীত পরিবেশন, দেবাশিষ দাশ দেবুর আবৃত্তি ও শোক প্রস্তাব পাঠের মধ্যদিয়ে পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে কাউন্সিল অধিবেশন শুরু হয়।

সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারী সাধারণ সম্পাদক কাজী সাজ্জাদ জহির চন্দন বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশকে আজ উল্টোপথে নিয়ে গেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার। উন্নয়নের নামে গলা ফাটানো প্রচারণা চলছে, অথচ মানুষের জীবন নানা সংকটে অতীষ্ঠ। দ্রব্যমূল্য, গ্যাস, পানি, বিদ্যুৎ সবকিছুর দাম বাড়ছে। বেকার বাড়ছে। শিক্ষা-স্বাস্থ্যখাতে নৈরাজ্য চলছে। সমাজব্যবস্থাও ধ্বংস করে দিয়েছে।’

আরো পড়ুন :
বঙ্গবন্ধু সেতুতে পরিবহন দুর্ঘটনায় দীর্ঘ যানজট
থানচি ইতিহাসের বড় শোকাহত পরিবার কেমন আছেন?

‘দুঃশাসন হঠাও, ব্যবস্থা বদলাও, বিকল্প গড়ো’ শ্লোগানকে সামনে রেখে সিপিবি জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মুকুলের সঞ্চালনায় সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নারীনেত্রী মুনিরা বেগম অনু, সিপিবি সাবেক জেলা সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন লাকু, ওয়াজিউর রহমান রাফেল, জেলা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির চেয়ারম্যান ছাদেকুল ইসলাম, আহ্বায়ক মুরাদ জামান রব্বানী।

বক্তারা বলেন, ‘দলীয় সন্ত্রাসীরা-দুর্নীতিবাজদের দাপটের কারণে সাধারণ মানুষ অসহায়। রাষ্ট্র এখন নিপীড়নের হাতিয়ারে পরিণত হয়েছে। এই অবস্থা আর বেশিদিন চলতে দেওয়া যায় না। মানুষকে জেগে উঠতে হবে। এই দুঃসহ-বিপদজনক অবস্থা থেকে মুক্তির জন্য বিকল্প রাজনীতির উত্থান ঘটানো জরুরি হয়ে পড়েছে। দুঃশাসন হটাতে জনগণকে সংগ্রামে নামতে হবে। সিপিবি অগ্রভাগে থেকে এই সংগ্রাম এগিয়ে নিতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ’।

এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত কাউন্সিল অধিবেশন চলছিল। কাউন্সিল অধিবেশনে জেলা সিপিবির নতুন কমিটি গঠন করা হবে। পরবর্তীতে সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে পার্টির নবগঠিত জেলা কমিটির সদস্যদের পরিচিতি জানিয়ে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন সিপিবি নেতৃবৃন্দ।

জানুয়ারি ১৪.২০২১ at ১৮:৩৫:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/সুকুব/রারি