কুয়েটে শিক্ষকের মৃত্যু, ৯ ছাত্রকে সাময়িক বহিষ্কার

বিজ্ঞাপন

খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. সেলিম হোসেনের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় কুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সেজানসহ ৯ জনকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এছাড়া ঘটনা সুষ্ঠুভাবে তদন্তের জন্য পাঁচ সদস্যরে তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

শনিবার (০৪ ডিসেম্বর) সকালে খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ ও তথ্য শাখা থেকে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এদিকে, বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার অনুষ্ঠিত খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭৬তম জরুরি সিন্ডিকেট সভা হয়। সেখানে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ইইই বিভাগের প্রফেসর ড. মো. সেলিম হোসেনের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনার সুষ্ঠুভাবে তদন্ত করে জড়িত অপরাধীদের শনাক্তকরণসহ সংশ্লিষ্ট আনুষঙ্গিক বিষয়াদি পর্যালোচনা করতে সুপারিশসহ রিপোর্ট প্রদান করার জন্য শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

আরো পড়ুন:
দিনাজপুর সদরের শেখপুরায় স্থানীয়দের উদ্যোগে মাদক বিরোধী বিশাল আলোচনা সভা
আজ বছরের শেষ সূর্যগ্রহণ

৩০ নভেম্বর ছাত্রলীগের একদল নেতাকর্মীর সাক্ষাতের পর ড. সেলিমের রহস্যজনক মৃত্যু হয়। ক্যাম্পাসের বাসার টয়লেটে অচেতন হয়ে পড়ার পর তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

কমিটির সদস্যরা হলেন, সদস্য সভাপতি অধ্যাপক ড. মহিউদ্দিন আহমদ, সদস্য প্রফেসর ড. খন্দকার মাহবুব হাসান, সদস্য সচিব প্রফেসর ড. মো. আলহাজ উদ্দীন, পুলিশ কমিশনার, কেএমপি, খুলনার মনোনীত একজন প্রতিনিধি (ন্যূনতম সহকারী কমিশনার পদমর্যাদা সম্পন্ন) এবং জেলা প্রশাসক, খুলনার মনোনীত একজন প্রতিনিধি (ন্যূনতম নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পদমর্যাদা সম্পন্ন)। কমিটিকে আগামী ১০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য বলা হয়েছে।

ডিসেম্বর ০৪.২০২১ at ১৬:২১:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/ভক/জআ