কোটচাঁদপুরে চুরির অপবাদে জুতার মালা গলায় দেওয়ার ঘটনায় আটক ১

বিজ্ঞাপন

পারিবারিক বিরোধের জেরে কোটচাঁদপুর পারলাট গ্রামের মিরাজুল ইসলাম টিটোন (২৪) নামে এক দিন মজুরকে মারধর ও জুতার মালা গলায় দিয়ে ফেসবুকে ছবি দেওয়ার ঘটনার ৪ দিন পার হলেও থানায় কোনো মামলা হয়নি। রবিবার মিরাজুলের পিতা অহেদুল ইসলাম বাদী হয়ে কোটচাঁদপুর থানায় অভিযোগ করেন।

সোমবার সকালে অভিযুক্ত আবু বকর (২০) নামে একজনকে আটক করে পুলিশ। কিন্তু আটকের কয়েক ঘন্টা পর মুচলেকা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। আবু বকর আটকের ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিপক্ষরা দুপুরে মিরাজুলের বাড়ি হামলা করতে গেলে প্রতিবেশীরা বাধা দেয়।

এ ব্যাপারে বলুহর ইউ পি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন বলেন, পারলাট গ্রামের ৩ থেকে ৪ শত মানুষের সাথে আমার কথা হয়েছে কেউ মিরাজুলকে চোর বলেনি। কিন্তু পুলিশ বলছে মিরাজুলের বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ রয়েছে। মিরাজুলের পিতার দেয়া অভিযোগের অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চাইলে থানার ডিউটি অফিসার নাজমা জানান, বিষয়টি এস আই হারুন অর রশিদ তদারকি করছেন।

আরো পড়ুন :
ইলিশ রক্ষা অভিযান: শিবচরে আরো ৫১ জেলেকে কারাদন্ড
বিশ্বসেরা গবেষকের তালিকায় ইবির ১৭ শিক্ষক

এস. আই হারুন-অর রশিদ বলেন, আদালতের অনুমতি নিয়ে অভিযোগের তদন্ত করা হবে। শনিবার ভোর সাড়ে ৪ চারটার দিকে উপজেলার পারলাট গ্রামের অহেদুল ইসলামের ছেলে মিরাজুল কাজ করার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়। পথিমধ্যে পূর্ব শত্রুতার জেরে আব্দুর রাজ্জাকসহ ৭-৮ জন ব্যক্তি তাকে জোরপূর্বক বাড়ির ভেতর নিয়ে যায়। তারা মিরাজুলকে চুরির অপবাদে হাতুড়িপেটা করে।

এক পর্যায়ে জুতার মালা গলায় দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছবি পোষ্ট করে। আহত মিরাজুল হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে বর্তমানে বাড়িতে অবস্থান করছেন। তার পিতা অহেদুল জানান, এ ঘটনার আকষ্মিকতায় তার ছেলে ঘৃণা ও ক্ষোভে বাড়ি থেকে বের হচ্ছে না।

অক্টোবর ১০.২০২১ at ২১:৩৮:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/এসএমরা/রারি