যুবলীগ নেতা হত্যা মামলায় কোটচাঁদপুরে ইউপি সদস্য’র যাবজ্জীবন

বিজ্ঞাপন

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার গান্না ইউনিয়নের সাবেক যুবলীগ নেতা জাকির হোসেন (শান্তি) হত্যা মামলায় কোটচাঁদপুর উপজেলার কুশনা ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য ও উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক বিএম নাসির উদ্দিনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন জেলা দায়রা জজ আদালত।

সোমবার (১৮অক্টোবর) বেলা ১১ টায় অতিরিক্ত জজ প্রথম আদালতের বিচারক মো. শওকত হোসাইন এ দন্ডাদেশ দেন। এ ছাড়াও মামলার অপর ৭ আসামীদের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দেওয়া হয়। একইসঙ্গে প্রত্যেককে পাঁচ হাজার টাকা করে জরিমানা ও বিস্ফোরক আইনে ৭ বছর করে কারাদন্ড দেন।

এ মামলার অপর আসামী সদর উপজেলার গান্না ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন মালিথার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় তাকে বেকসুর খালাস ও মশিউর রহমান এবং উজ্জল হোসেন মারা যাওয়ায় তাদের মামলা থেকে বাদ দেওয়া হয়। ইউপি সদস্য নাসির কোটচাঁদপুর উপজেলার কুশনা ইউনিয়নের জালালপুর গ্রামের মালোখালি পাড়ার মৃত নায়েব আলী বিশ্বাসের ছেলে।

আরো পড়ুন :
ঝালকাঠিতে মাদক কারবারি গ্রেপ্তার
রিং আইডির কার্যক্রম পুনরায় চালুসহ চার দফা দাবি গ্রাহকদের

মামলার বিবরণ সূত্রে জানা যায়, ২০১০ সালের ৭ জুলাই গান্না বাজার থেকে সন্ধায় মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফিরছিলেন তৎকালীন ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন-আহ্বয়ক জাকির হোসেন মন্ডল শান্তি। পথিমধ্যে কাশিমনগর ব্রিজের উপর পরিকল্পিত বোমা হামলার শিকার হন শান্তি।

এ ঘটনার দুই দিন পর ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। এ ঘটনায় শান্তির শশুর ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম মালিথা বাদী হয়ে ঝিনাইদহ সদর থানায় অজ্ঞাত আসামী করে মামলা করেন। পুলিশ এই মামলায় ৮ জনকে গ্রেফতার করে।

তাদের মধ্যে ৩ জন ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দেন। ২০১১ সালের ২৪ অক্টোবর পুলিশ হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ১১ জনকে আসামী করে চার্জশিট দাখিল করেন।

অক্টোবর ১৮.২০২১ at ২১:০৫:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/এসএমরা/রারি