স্ত্রীর পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন সাবেক সংসদ সদস্য আফাজ উদ্দিন, প্রধানমন্ত্রীর শোক

সাবেক সংসদ সদস্য অাফাজ উদ্দিন আহমেদের জানাজা নামাজে উপস্থিতির একাংশ।
বিজ্ঞাপন

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়া কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সাবেক সংসদ সদস্য, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফাজ উদ্দিন আহমেদের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। তার ছোট ছেলে দৌলতপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট এজাজ আহমেদ মামুনসহ সঙ্গে থাকা পরিবারের অন্য সদস্যরা রবিবার (১৮ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা থেকে মরদেহ দৌলতপুরের তারাগুনিয়ায় নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন। এ সময় স্বজনদের আহাজারিতে পরিবেশ ভারি হয়ে ওঠে। এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা ঘটে।

বিকেলে বাদ আসর তারাগুনিয়া ফুটবল মাঠ প্রাঙ্গণে তার জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে ১০ দিন আগে সমাহিত করা স্ত্রী মনোয়ারা বেগমের পাশে অাফাজ উদ্দিন আহমেদকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়। এ জানাজায় কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম আলতাাফ জর্জ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী, জেলা পরিষদ চেয়ােম্যান হাজি রবিউল ইসলাম, কুষ্টিয়া পৌরসভার মেয়র আনোয়ার আলী, কুষ্টিয়া শহর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সদর উপজেলা চেঢারম্যান আতাউর রহহমান আতা, সাবেক সংসদ সদস্য রেজাউল হক চৌধুরী, দৌলতপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য রেজা আহমেদ বাচ্চুসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারাসহ মর্বস্তরের মানুষজন উপস্থিত ছিলেন।

দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বর্ষীয়ান নেতা আফাজ উদ্দিন আহমেদ ও তার স্ত্রী মনোয়ারা বেগম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে গত ২৩ জুন তাদের ঢাকায় নেয়া হয়। ভর্তি করা হয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিইউতে। সেখানে চিকিৎসা গ্রহণের একপর্যায়ে মনোয়ারা বেগমকে লাইফ সাপোর্ট রাখা হয়। চারদিন লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় গত ৮ জুলাই সকালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। আফাজ উদ্দিন আহমেদ স্ত্রীর মৃত্যুর সময় ওই হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ছিলেন। তার শারীরিক অবস্থাও মোটামুটি স্থিতিশীল ছিল। কিন্তু স্ত্রীর মৃত্যুর পর থেকেই ধীরে ধীরে তার অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের দীর্ঘদিনের কান্ডারি আফাজ উদ্দিন আহমেদের অবস্থার মারাত্মক অবনতি ঘটায় গত পাঁচদিন আগে বিএসএমএমইউ থেকে তাকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে ইনসেনটিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) নেয়ার পর ক্রমশ আরো অবস্থার অবনতি হওয়ায় লাইফ সাপোর্ট দেয়া হয়। একপর্যায়ে হাল ছেড়ে দেন হাসপাতালটির চিকিৎসকরা। টানা ২৪ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়াইয়ের পর হেরে যান তিনি। স্ত্রীর মৃত্যুর ১০ দিন পর শনিবার দিবাগত রাত ১টা ৪০ মিনিটে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন আওয়ামী লীগ দলীয় সাবেক এই সংসদ সদস্য।

আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শোকবার্তা।

এদিকে কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সাবেক সংসদ সদস্য, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফাজ উদ্দিন আহমদের মৃত্যুতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গভীর শোক, দুঃখ ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন। শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী মরহুরের পবিত্র আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকাহত পরিবার ও স্বজনরা যাতে দ্রুত এই শোক কাটিয়ে উঠতে পারে সেই জন্য মহান আল্লাহর কৃপা প্রার্থনা করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একই সঙ্গে করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান।

দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফাজ উদ্দিন আহমদের মৃত্যুতে শোক ও দুঃখ প্রকাশ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরও একই সঙ্গে শোকবার্তা পাঠিয়েছেন। তিনি শোকাহত পরিবারবর্গের প্রতি সমবেদনা জানান এবং মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন। রবিবার আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক যৌথ সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের এই শোক প্রকাশ করা হয়।