পাঁচবিবি সীমান্তে পুকুর সংস্কারের  বিজিবি বিএসএফের বাধা

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার উচনা (সোনাতলা) সীমান্তবর্তী এলাকায় পুরাতন একটি পুকুর সংস্কার কাজে ভারতের বিএসএফ ও হাটখোলা বিজিবি সদস্যরা তাতে বাধা প্রদান করেছে। ফলে ভ‚ক্তভোগী পুকুরটি সংস্কারের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিকট একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে।

অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার উচনা গ্রামের মৃত মোজাফ্ফর রহমানের পুত্র ফজলুর রহমান ভারত ঘেঁষা হাটখোলা সীমান্তের ২৮০/৫ ও ৬ নং পিলার থেকে দেড়’শ গজের বাইরে উচনা মৌজার ৭৪৫ নং খতিয়ানের ৬৫৩ দাগের পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া ২একর ২৮ শতক পুকুরটি বাপ দাদার আমল থেকে মাছ চাষ করে আসছেন।

আরো পড়ুন :

> তুরাগ পাড়ের বেদখল জমি উদ্ধার
> যবিপ্রবির নতুন সহকারী প্রক্টর হলেন এস এম মনিরুল ইসলাম

বর্তমানে পুকুরটির তলানী মাটি জমে ভরাট হয়ে যাওয়ার কারণে গত ৯জুন শুক্রবার পুকুরটি পূণঃখনন শুরু কাজ করেন। ঐদিন দুপুরে ভারতের পশ্চিম বাংলার বিএসএফের গয়েশপুর টেনপোষ্ট ফাঁড়ীর বিএসএফ ও হাটখোলা বিজিবি ক্যাম্পের নায়েক সুবেদারসহ ৩জন সদস্য এসে জিরো পয়েন্ট থেকে ১৫০গজ ভিতরে পুকুরটির অবস্থান হওয়ার অভিযোগ এনে খনন কাজ বন্ধ করে দেন। কিন্তু মাপযোগ করে পুকুরটি জিরো পয়েন্টের ১৫০ গজের বাইরে হওয়াই ভুক্তভোগী খনন কাজ শুরু করলে বাধা দেন উভয় দেশের জোয়ানরা।

এসময় ভ‚ক্তভোগী প্রতিবাদ করলে হাটখোলা বিজিবি ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার বিএসএফ জওয়ানদের উদ্দেশ্য করে বলেন, পূণরায় খনন কাজ করলে আপনারা গুলি চালাবেন এমনও অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী।

এবিষয়ে হাটখোলা বিজিবি ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার নাঈমুল ইসলামের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, পুকুর খননের স্থানটি সীমান্ত এলাকার জিরো পয়েন্ট থেকে দেড়’শ গজের ভিতরে। সে কারণে আমরা খনন কাজে বাধা দিয়েছি।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফা সুলতানা বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। যেহেতু বিষয়টি সীমান্তের সেহেতু আগামী উপজেলার আইন শৃংখোলা কমিটির সভায় বিষয়টি আলোচনা করা হবে।

জুন ১৫, ২০২৩ at ১১:৪০:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/মোমাপারা/ইর