রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম আন্তর্জাতিক কনফারেন্স শুরু আগামীকাল

১৪ জুন ২০২৩ রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে 1st International Conference On The Art Of Social Changes উপলক্ষ্যে সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। বুধবার বিকাল ৫.৩০ মিনেটে শাহজাদপুর পৌর শহরের সীমান্ত কনভেনশন সেন্টারে এই সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহ্ আজম বলেন, শুরুতেই গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে, তাঁর নেতৃত্বে আমরা যেমন ভুখন্ড পেয়েছি তেমনি সাংস্কৃতিক পরিচয় লাভ হয়েছে। আমরা আজ যে আন্তর্জাতিক সম্মেলন করতে যাচ্ছি তার পশ্চাতে রয়েছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পৃষ্ঠপোষকতা। শাহজাদপুরের ইতিহাসে এক অনন্য ঘটনা এই আন্তর্জাতিক সম্মেলন। জননেত্রী শেখ হাসিনা এই বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা এবং শিক্ষা-গবেষণাকে তৃণমূলে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য ধন্যবাদার্হ।

আরো পড়ুন :

> বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে দেশে ফিরেছে ভারতে পাচার হওয়া ৬ বাংলাদেশি যুবক
> বগুড়ায় মাত্রাতিরিক্ত সেকারিন মিশ্রিত শরবত বিক্রি: বিক্রেতাদের জরিমানা

উপাচার্য মহোদয় বলেন, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় প্রথম আন্তর্জাতিক কনফারেন্স করতে যাচ্ছে আগামী ১৫ জুন থেকে ১৭ জুন। সম্মেলনের থিম হচ্ছে ‘Combining the Art of Social Changes towards Smart Bangladesh’। আপনারা জেনে আনন্দিত হবেন যে, সমাজ পরিবর্তনে বহুমাত্রিক সংস্কৃতি এবং বিচিত্র ভাবনার সংযোগ ঘটেছে। এখানে একটু জানিয়ে রাখা ভালো যে শতাধিক প্রবন্ধ আমাদের সম্মেলনে উপস্থাপন করার জন্য দেশ-বিদেশের গবেষকেরা জমা দিয়েছেন। সেখান থেকে রিভিউর মাধ্যমে আমরা প্রায় একশত প্রবন্ধ বাছাই করেছি। জ্ঞান ও চিন্তনের মিথস্ক্রিয়ায় এই সম্মেলনের জন্য রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় প্রস্তুত। এই তিনদিনের কনফারেন্সে প্রায় একশ প্রবন্ধ উপস্থাপিত হবে। এখানে দেশ-বিদেশের চিন্তক, গবেষক ও বিশ্লেষকগণ আপন ভাবনা নিয়ে উপস্থিত থাকবেন। আমাদের অভিপ্রায় এই সম্মেলনে উপস্থাপিত প্রবন্ধের মাধ্যমে নতুন ভাবনা আসবে। আমাদের এখানে তিনজন সাবেক উপাচার্য কি নোট পেপার উপস্থাপন করবেন, তারা হলেন ভারতের রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. পবিত্র সরকার, বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. সজিত কুমার বসু, এবং ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আইনুন নিশাত। এছাড়াও থাকছেন মালয়শিয়ার মালায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. নুরিজাহ বিনতে মোহাম্মদ মুস্তামিল, খ্যাতনামা রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী গবেষক রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা এবং কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. মহালয়া চক্রবর্তী। একই সঙ্গে পাঁচটি স্থানে আলোচনা চলবে। আমাদের একাডেমিক ভবন এবং সীমান্ত কনভেনশেন সেন্টারের পাঁচটি স্থানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হবে। আমরা সেখানে স্মার্ট বাংলাদেশ ও সমাজ পরিবর্তনের নানা ধাপ নিয়ে আলোচনা ও মূল্যায়ন করবো। ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান এবং রাষ্ট্র পারস্পরিক সমঝোতা ও সমন্বয়ের মাধ্যমে এক নতুনতর ধাপে উপনীত হবে।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে উপাচার্য মহোদয় বলেন, আপনাদের জানিয়ে রাখি আমাদের সম্মেলন উদ্বোধন করবেন দুইজন সাবেক এবং একজন বর্তমান উপাচার্য, শিক্ষা-গবেষণা সংক্রান্ত এই সম্মেলনে শিক্ষাবিদ ও চিন্তাবিদগণ উদ্বোধন করার মাধ্যমে সম্মেলনকে নতুন মাত্রা দেবে। এই সম্মেলনে যেসব বিষয়ে আলোচনা হবে সেগুলো হলো, সাহিত্য, সংস্কৃতি, বাণিজ্য, প্রযুক্তি, সংগীত, অর্থনীত এবং সমাজবিজ্ঞান ইত্যাদি।

এই সম্মেলনের সমাপনী পর্বে যুক্ত হবেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় উপমন্ত্রী জনাব মহিবুল হাসান চৌধুরী। সাংবাদিক বন্ধুদের জানিয়ে রাখছি এই সম্মেলনে নির্ধারিত গবেষকগণ প্রবেশ করবেন। হয়তো আমরা আলোচনায় আপনাদের যুক্ত করতে পারবো না। কিন্তু প্রতিদিনই আমাদের প্রচার কমিটি আপনাদের প্রয়োজনীয় তথ্য সরবরাহ করবে। আর চিন্তক, গবেষক এবং বুদ্ধিজীবীদের পদচারনা রবীন্দ্র স্মৃতি বিজড়িত শাহজাদপুরের জনগণের আতিথেয়তা এবং আন্তরিকতার সঙ্গে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের যোগ ঘটলো।

আপনাদের সকলের মঙ্গল কামনা করছি। আমাদের পাশে আপনারা থাকবেন সে প্রত্যাশা রইলো। এসময় রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক কনফারেন্স প্রস্তুত কমিটির সদস্য ও শাহজাদপুর এবং সিরাজগঞ্জের সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

জুন ১৪, ২০২৩ at ২০:৫৯:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/দেপ্র/ইর