তালায় ধর্ষণের স্বীকার শিশু কন্যা ৪ মাসে অন্তস্বত্তা,২ ধর্ষক গ্রেফতার

ছবি- সংগৃহীত।

সাতক্ষীরার তালায় উপর্যুপরি ধর্ষণের স্বীকার ১১ বছরের এক শিশু কন্যা ৪ মাসের অন্তস্বত্তা । ঘটনাটি উপজেলার খেশরা ইউনিয়নের ডুমুরিয়া গ্রামে ঘটেছে। এ ঘটনায় শিশুটির পিতা বাদী হয়ে গত ১৩ জুন মঙ্গলবার বিকালে তালা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মঙ্গলবার রাতেই ধর্ষকদের গ্রেফতার করেছে তালা থানা পুলিশ। আটককৃতরা হলো- ডুমুরিয়ার রমজান আলী মোঢ়ল (৫৫) ও তার ভাতিজা বাপ্পী মোঢ়ল (২৮)।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৫ মাস পূর্বে উপজেলার ডুমুরিয়া গ্রামের মনিরুল ইসলামের শিশু কন্যা বাড়ির পাশে গাছের ডাল কাটতে যায়। এসময় ডুমুরিয়া গ্রামের মৃত বক্স মোড়লের ছেলে রমজান আলী মোড়লের (৫৫) মেয়েটির মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে এবং ঘটনাটি কাউকে না জানাতে নিষেধ করে।

আরো পড়ুন :

> মদনে অধ্যক্ষ নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ
> ঝালকাঠিতে ভেঙে পড়লো নির্মানাধীন বঙ্গবন্ধু মঞ্চ

কাউকে জানালে প্রানে মেরে ফেলার হুমকিও দেয়।তবে ধর্ষনের ঘটনাটি স্থানীয় ইনছাব মোড়লের ছেলে বাপ্পী মোড়ল(২৮) দেখে ফেলেন। পরবর্তীতে বাপ্পী মোড়ল মেয়েটির দুর্বলতার সুযোগে ধর্ষনের বিষয়টি সকলকে জানিয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে তার বসত ঘরে নিয়ে একাধিকবার আধর্ষণ করে।

ঘটনার ৫ মাস অতিবাহিত হওয়ার পর মেয়ের শারিরীক অবস্থার পরিবর্তন হলে মামলারবাদী গত ৯ জুন মেয়েকে নিয়ে তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক মেয়ের অন্তস্বত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

অন্তস্বত্তার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পরেই মঙ্গলবার (১৩ জুন)বিকালে কন্যার পিতা মনিরুল ইসলাম বাদী হয়ে দুজনের নাম উল্লেখ করে তালা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মঙ্গলবার রাতেই ধর্ষকদের গ্রেফতার করেছে তালা থানা পুলিশ।

তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) চৌধুরী রেজাউল করিম জানান, গতকাল মঙ্গলবার বিকালে শিশুটির পিতা বাদী হয়ে তালা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।মামলায় উল্লেখিত ধর্ষকদের গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ তাদের বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হবে জানান তিনি।

জুন ১৪, ২০২৩ at ১৭:০০:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/দেপ্র/ইর