ঝিনাইদহে যৌতুকের দাবীতে স্ত্রীসহ ৩জনকে পিটিয়ে আহত করেছে স্বামী: স্বামী আটক

ঝিনাইদহে যৌতুকের দাবীতে স্ত্রীসহ ৩জনকে পিটিয়ে আহত করেছে স্বামী আব্দুস সালাম। ঘটনাটি ঘটেছে সদর উপজেলার হামদহ শান্তিনগর পাড়ায়। এঘটনায় স্ত্রী কাজলী খাতুন থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে স্বামী আব্দুস সালামকে আটক করেছে থানা পুলিশ। সালাম একই গ্রামের আবু জব্বার এর ছেলে।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, গত ৪ মাস আগে শান্তিনগর গ্রামের আসাদ মন্ডলের মেয়ের সাথে একই গ্রামের আবু জব্বার এর ছেলে আব্দুস সালাম এর বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্ত্রীর পরিবারের কাছে যৌতুক দাবী করে আসছে সালাম। মেয়ের পরিবার অসহায় ও গরীব হওয়ায় টাকা দিতে অপারগতা স্বীকার করে। এরপর থেকেই চলতে থাকে শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন।

আরো পড়ুন :

> ঠাকুরগাঁওয়ে চাঞ্চল্যকর ২ মামলায় রায়
> ইবিতে ছাত্রী নির্যাতন : অভিযুক্তদের চূড়ান্ত বক্তব্য শুনলেন প্রশাসন

নির্যাতনের স্বীকার কাজলী খাতুন জানায়, বিয়েরপর থেকেই বিভিন্ন সময়ে টাকা দাবী করে আসছিল তার স্বামী সালাম, টাকা না দেওয়ায় তাকে প্রায়ই মারধর অত্যাচার নির্যাতন করে। গত ৯-৬-২৩ ইং তারিখ বিকালে তার স্বামী সালাম মাদক সেবন করে এসে আবারো টাকা দাবি করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে, আমি নিষেধ করলে সে আমাকে কাঠের বাটাম দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ী পিঠিয়ে জখম করে।

এছাড়া আমার শাশুড়ী চুলের মুঠি ধরে ফেলে দিয়ে পেটে লাথি মেরে বেদনাযুক্ত জখম করে। পরে আমাকে ঘরের মধ্যে আটকে রাখে। খবর পেয়ে আমার মা শ্বশুড় বাড়ী থেকে আমাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

কাজলী আরো জানায়,চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১১-৬-২৩ ইং রবিবার আবারো হাসপাতালে এসে মারধর করে। সেসময় আমার বোন আসমা খাতুন ঠেকাতে গেলে তাকেও মারধর করে আহত করে। বোনকে মেরেও ক্ষ্যান্ত হয়নি,আমার বোনের ৫ বছরের মেয়ে মিনিকে মেরেও জখম করে। এঘটনায় আমি ও আমার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছী। আমি আমার স্বামী মাদকাসক্ত সালামের কঠিন বিচার চাই।

ঝিনাইদহ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা জানান, স্ত্রীকে নির্যাতনের ঘটনায় কাজলী নামে একজন লিখিত অভিযোগ করেছে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে স্বামী সালামকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জুন ১২, ২০২৩ at ১৮:৫১:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/মসু/ইর