তীব্র তাপদাহে পুড়ছে পাট দুঃচিন্তায় কৃষক

নওগাঁর বদলগাছীতে প্রচন্ড খড়া, তীব্র তাপদাহ ও অনাবৃষ্টির কারণে পুড়ছে শত শত বিঘা জমির পাটক্ষেত। পাট বাংলাদেশর একটি সোনালী ফসল।

গত দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে বদলগাছী উপজেলার তাপমাত্রা থাকছে ৩৮ থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। জ্যৈষ্ঠ মাসের কাঠফাটা রোদ ও অনাবৃষ্টিতে পাটের ক্ষেতর গাছ শুকিয়ে জমির মাটি ফেটে যাচ্ছে। দির্ঘ দিন থেকে বৃষ্টি না থাকায় ও জমিতে সেচ দিতে না পারায় পাট গাছের বৃদ্ধি হচ্ছে না। আবার অরিরিক্ত তাপদাহের করণে পাট গাছ মরে যাচ্ছে।ফলে চলতি মৌসুমে পাট চাষ নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় পড়েছেন কৃষকরা।

উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখাগেছে, প্রচন্ডু খরায় জমির মাটি ফেটে যাচ্ছে এবং পাটগাছ শুকিয়ে মরে যাচ্ছে। আবার কোথাও কোথাও তাপদাহ থেকে সোনালী আঁশ পাট গাছকে বাঁচাতে বাধ্য হয়ে জমিতে দিচ্ছেন সেচ। আবার কেউ কেউ দিচ্ছেন পাটক্ষেতে নিড়ানি দিচ্ছেন, আবার কেউ সেচ দেওয়ার পরে জমিতে সার দিচ্ছেন। আবার কেউ কেউ কৃষক জমিতে সেচ দেওয়ার জন্য পাচ্ছে না পানি ।

আরো পড়ুন :
> ঘোড়াঘাটে মোজাম পার্ক থেকে ৬ পতিতা নারী সহ ৯ জন আটক
> চার্জার ফ্যান এখন ‘সোনার হরিণ’

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে ৩ হাজার পাটচাষীকে ১ কেজি করে প্রণোদনার পাটবীজ প্রদান করা হয়েছে। এই মৌসুমে উপজেলায় ১৪০০ হেক্টর জমিতে পাট চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। আর লক্ষ্য মাত্রা অর্জিত হয়েছে ১৩ শত ৩০ হেক্টর। আবহওয়া অনুকূলে থাকলে লক্ষমাত্রা ছাপিয়ে যেত।

বদলগাছীর কাদিবাড়ী গ্রামের কৃষক মোসলেম বলেন, আমি ৫কাঠা জমিতে পাট লাগিয়েছি। প্রথমে বৃষ্টিপাত না হওয়ায় পচন্ড গরমে পাট গাছ উঠেনি। পরে আবারো চাষ করে পাট বীজ বুনেছি। এবার পাট গাছ উঠলেও বৃষ্টিপাত না হওয়ায় পাট গাছ বাড়ছে না । প্রচন্ড তাপদাহে পাট গাছ মরে যাচ্ছে। বিদ্যুৎতের লোডশেডিং এর জন্য সেচ দিতে পারছিনা।

বদলগাছী উপজেলার আধাইপুর ইউনিয়নের ব্যাসপুর গ্রামের কৃষক বাবু জানান, পাটচাষের পর থেকে দীর্ঘদিন বৃষ্টি না হওয়ায় মাটি শুকিয়ে রস শূন্য হয়ে গেছে। ফলে ডিজেল চালিত ইঞ্জিন ও বৈদ্যুতিক মোটরের সাহায্যে সেচ দিতে হচ্ছে। প্রতিবার সেচ দিতে বিঘা প্রতি খরচ হচ্ছে প্রয় ৮০০ থেকে ১০০০ হাজার টাকা। আর এতে করে উৎপাদন খরচ বেড়েছে কয়েক গুণ।

ব্যাসপুর গ্রামের কৃষক আসলাম মন্ডল বলেন, গত বছর পাটের ভালো দাম পেয়ে এবার ২ বিঘা জমিতে পাট চাষ করেছি। অনাবৃষ্টির কারণে পাটে যে সেচ দিব তারও উপায় নেই বোড়িংয়ে পানি উঠছে না। অতিরিক্ত গরম ও তাপদাহে পাটগাছ বাড়ছে না এবং মরে যাচ্ছে। সব মিলিয়ে পাট নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছি।

বদলগাছী আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায় , গতকাল বদলগাছীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪০.৬ ডিগ্রী। আগামী ১০তারিখের পর হালকা বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

বদলগাছী উপজেলা কৃষি অফিসার সাবাব ফারহান জানান, চলতি মৌসুমে পাট চাষের শুরু থেকেই পর্যাপ্ত বৃষ্টিপাত হয়নি । এবং প্রচন্ড খড়া ও তাপদাহের কারণে পাট ক্ষেতের পাট মরে যাচ্ছে। পাটের জমিতে নিয়ম মেনে সেচ দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে কৃষকদের। এবং সেচের ব্যবস্থা না থাকলে প্রয়োজনে পানি স্প্রে করতে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। যে গুলো জমির পাট মরে যাচ্ছে সেগুলো জমিতে প্রতি ১৬লিটার পানিতে ২০ গ্রাম ইউরিয়া,২০গ্রাম এমওপি ও ৫গ্রাম জীবসাম স্প্রে করতে হবে।

জুন ০৮, ২০২৩ at ১৬:১৭:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/মোসারসা/ইর