গাজীপুরে পুলিশের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

গাজীপুরের টঙ্গীতে এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে মো. আলী আজম নামে এক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। তিনি গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের দক্ষিণ বিভাগে ট্রাফিক পরিদর্শক পদে কর্মরত আছেন। রোববার রাতে মহানগরীর টঙ্গী হোসেন মার্কেট এলাকায় একটি বাসায় এঘটনা ঘটে।

আরো পড়ুন :
> তিন দফা দাবিতে জাবি শিক্ষার্থীর ১৫০ ঘন্টা অনশন
> মদনে বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালিত

পুলিশ জানায়, কয়েক বছর আগে পুলিশ কর্মকর্তা আলী আজমের সাথে ওই নারীর পরিচয় হয় । পরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এরি মধ্যে ওই নারী কয়েক মাসের অন্ত:সত্তা হয়ে পরেন।

পরে স্থানীয় একটি বেসকারী হাসপাতালে অবৈধ গর্ভপাত করান পুলিশ কর্মকর্তা। ঘটনার কয়েকদিন পার হওয়ার পর ভুক্তভোগী নারী পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ অভিযোগ তুলেন।

ভুক্তভোগী নারী বলেন, আলী আজমের সাথে আমার প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আমার সাথে শারিরিক সম্পর্ক গড়েন তিনি। আমি অন্ত:সত্তা হয়ে পড়লে একটি হাসপাতালে নিয়ে আমার গর্ভপাত করান। আমি পুলিশ কমিশনারের কার্যলয়ে গিয়ে মৌখিক অভিযোগ দিয়েছি।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের উপ পুলিশ কমিশনার আলমগীর হোসেন বলেন, ওই নারীর মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জুন ০৫, ২০২৩ at ১৮:৩৪:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/শেরাহা/ইর