নড়াইলে নৌকাডুবিতে আরও একজনের মরদেহ উদ্ধার

ছবি: মাহমুদ শেখ, সংগৃহীত

নড়াইলে নৌকাডুবির চতুর্থ দিনে মাহমুদ শেখ (৪৩) নামে এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। এ পর্যন্ত মোট ছয়জনের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। মঙ্গলবার (৩ জানুয়ারি) সকাল পৌনে ১০টার দিকে কালিয়া উপজেলার নড়াগাতী থানাধীন বড়দিয়া ফেরিঘাট থেকে ভাসমান অবস্থায় মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। মাহমুদ শেখ কালিয়া উপজেলার ছোট কালিয়া গ্রামের মৃত খালেক শেখের ছেলে। নড়াগাতী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকান্ত সাহা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নড়াইল ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. মাহাবুব আলম বলেন, নৌকাডুবির চতুর্থ দিনে ঘটনাস্থলে আমরা উদ্ধার অভিযান শুরু করি। সকালে আমরা খবর পাই বড়দিয়া ফেরিঘাট এলাকায় একটি মরদেহ ভাসতে দেখা যাচ্ছে। আমরা তাৎক্ষণিক সেখানে যাই এবং ভাসমান অবস্থায় মরদেহটি উদ্ধার করি। আমরা নৌপুলিশে মরদেহটি হস্তান্তর করেছি। তিনি আরও বলেন, নৌকাডুবির চার দিনে আমরা মোট ছয়টি মরদেহ এবং ডুবে যাওয়া নৌকা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছি।

আরো পড়ুন:
> সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আনিসুর রহিম আর নেই
> চৌগাছায় বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ, খরচ নিয়ে শংকায় কৃষক

নৌকাডুবিতে ভিকটিম শনাক্ত করতে পারায় আমাদের উদ্ধার অভিযানের সমাপ্তি ঘোষণা করছি। প্রসঙ্গত, গত বছর শুক্রবার (৩০ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার সালামাবাদ ইউনিয়নের বাহিরডাঙ্গা ও পার বাহিরডাঙ্গা গ্রামের মধ্যবর্তী নবগঙ্গার মাঝনদীতে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। বাহিরডাঙ্গা গ্রামে এক আত্মীয়ের মৃত্যুর খবর শুনে ১৮ থেকে ২০ জন স্বজন ও প্রতিবেশী বাহিরডাঙ্গা গ্রাম থেকে নৌকাযোগে রওনা দেন।

অতিরিক্ত যাত্রীর কারণে নবগঙ্গার মাঝনদীতে নৌকাটি ডুবে যায়। স্থানীয়দের সহায়তায় ওই রাতেই ৫ নারী ও শিশুসহ মোট ৯ জনকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। নৌকাডুবিতে এখন পর্যন্ত নাজমা বেগম (৩০), নাজমার ছেলে নাসিম (২), গ্রাম্য চৌকিদার লাভু (৩৫), নাজমার চাচাতো দুলাভাই খানজে শেখ (৫৭), নাজমার ভাই রয়েল মন্ডল (২৮) ও নাজমার দুলাভাই মাহমুদ শেখের (৪৩) মৃত্যু হয়েছে।

জানুয়ারি ০৩, ২০২৩ at ১৯:৫০:০০(GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/দেপ/ইমস