গুঞ্জন সত্যি, সৃজিতের ‌‌সিনেমায় ‘মৃণাল’ চরিত্রে চঞ্চল

ছবি- সংগৃহীত।

গত ১৪ মে ছিল ভারতীয় চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি পরিচালক মৃণাল সেনের ৯৯তম জন্মতিথি। সেদিনই তাঁকে শ্রদ্ধা জানিয়ে ‘পদাতিক’ ওয়েব সিরিজ তৈরি করার কথা ঘোষণা করেছিলেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। কিন্তু মৃণাল সেনের ভূমিকায় কে অভিনয় করতে পারেন? সেই প্রশ্নের উত্তর এদিন কিছুটা হলেও পাওয়া গেল। কারণ কিংবদন্তি পরিচালকের চরিত্রে অভিনয়ে প্রস্তাব জনপ্রিয় বাংলাদেশি অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীকে  দিয়েছেন সৃজিত।

‘পদাতিক’ ওয়েব সিরিজে মৃণাল সেনের ভূমিকায় অভিনয় করবেন? এই প্রশ্নই করা হয়েছিল চঞ্চল চৌধুরীকে। ফোনে অভিনেতা জানান, সৃজিতের প্রস্তাব তিনি পেয়েছেন। তবে গোটা বিষয়টি এখনও ভাবনা-চিন্তার স্তরে রয়েছে। মৃণাল সেনের মতো বড়মাপের পরিচালকের চরিত্রে অভিনয় করার মতো যোগ্যতা তাঁর আদৌ আছে কিনা, তা আগে বুঝে নিতে চান চঞ্চল। তারপরই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।

সব গুঞ্জন সত্যি করে দিয়ে অবশেষে জানালেন, কিংবদন্তি বাঙালি চলচ্চিত্রকার মৃণাল সেনের ভূমিকায় অভিনয় করবেন চঞ্চল। পরিচালনায় টালিউডের সফল নির্মাতা সৃজিত মুখার্জি। সিনেমার নাম ‘পদাতিক’। ইতোমধ্যে সিনেমাটির একটি প্রাথমিক পোস্টার শেয়ার করেছেন সৃজিত। সেখানে লেখা রয়েছে, চঞ্চল চৌধুরীই হচ্ছেন পর্দার মৃণাল সেন।

এদিকে শুক্রবার (৩০ ডিসেম্বর) সময় সংবাদকে চঞ্চল চৌধুরী বলেন, ‘আমি যখনই শুনেছিলাম যে মৃণাল সেনের চরিত্রে অভিনয় করতে হবে, আমি আসলে প্রথমে কাজটি করতে চাইনি। কারণ মৃণাল সেনের চরিত্রে অভিনয় করার যে দক্ষতা বা যোগ্যতা, সেটা আমার আছে কি না বা সেই প্রস্তুতি আমার নেওয়ার ক্ষমতা আছে কি না বা আমি পারব কি না; এই ব্যাপারে আমি আসলে সন্দিহান ছিলাম। এ জন্য প্রথম দিকে আগ্রহটা আমি ওভাবে প্রকাশ করিনি। বরং কাজটা না করার জন্য চেষ্টা করেছিলাম।

আরো পড়ুন :
>শীতে অ্যাজমা নিয়ন্ত্রণে থাকবে যেভাবে
>মিয়ানমারে সু চির ৭ বছরের কারাদণ্ড
>শিবগঞ্জে সরকারি প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

সিনেমাটি নির্মিত হচ্ছে মৃণাল সেনের জীবন ও কর্ম অবলম্বনে। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর মারা যান মৃণাল সেন। এই বিশেষ দিনেই চমকপ্রদ খবরটি প্রকাশ করলেন নির্মাতা-প্রযোজকরা। নতুন বছরের শুরুতেই সিনেমার কাজ শুরুর কথা ছিল। তবে চঞ্চলের বাবার মৃত্যুর কারণে ২০২৩ সালের জানুয়ারির মাঝামাঝি অথবা শেষের দিকে কাজ শুরু করতে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন এই অভিনেতা।

ডিসেম্বর ৩০.২০২২ at ১৫:৩২:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/এসএমডি/এসআর