হাতীবান্ধায় সীমান্তে বিএসএফ এর গুলিতে দুই জন বাংলাদেশী নিহত। 

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় দোলাপাড়া জিগারঘাট সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) এর গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। এ সময় পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে আরও একজন গুরুতর আহত। বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) ভোরে হাতীবান্ধার দোলাপাড়া সীমান্তে ৮৮৮ নং মেইন পিলারের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন উপজেলার ফকিরপাড়া ইউনিয়নের পূর্ব ফকিরপাড়া গ্রামের আব্দুস সামাদের ছেলে নাজির হোসেন মংলু (৪০) ও বড়খাতা দোলাপাড়া গ্রামের হাফিজার রহমানের ছেলে সাদিক হোসেন (২৩)। এ ঘটনায় পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন পূর্ব ফকিরপাড়া গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে সাজু (২৫)। আহত সাজুর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, তিনি রংপুরের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে গোপনে চিকিৎসা নিচ্ছেন। ফকিরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান খোকন এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ।

এলাকাবাসী ও বিজিপি সূত্রে জানা গেছে, বুধবার গভীর রাতে উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নের দোলা সীমান্ত দিয়ে ১০/১২ জনের একটি দল ভারত থেকে গরু নিয়ে সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে আসছিলেন। এসময় সীমান্তের ৮৮৮ মেইন পিলারের অধীন ৮ নম্বর সাব পিলার এলাকায় পৌঁছলে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার জেলার সিতাই থানার বড় মধুসূদন বিএসএফ ক্যাম্পের টহল দলের সদস্যরা তাদের লক্ষ্য করে গুলি চালান।

আরো পড়ুন :
>দেশের ৮১ ইউপি ও ৫ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শুরু
>মরিয়ম নগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩য় প্রান্তিক মূল্যায়নের ফলাফল প্রকাশ
>স্ত্রীর ইউটিউব থেকে রোজগার মেনে নিতে না পেরেই কি খুন?

এ সময় ভারতের অভ্যন্তরে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান দুই বাংলাদেশি। পরে সঙ্গীরা গুলি বিদ্ধ নিহতদের নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন। বড়খাতা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য হাফিজুল ইসলাম বলেন, গভীর রাতে ভারতে গরু আনতে গিয়ে বিএসএফের গুলিতে দুজন নিহত হয়েছেন। তাদের মরদেহ নিজ বাড়িতে আছে।

রংপুর ৬১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফট্যানেন্ট কর্নেল মীর হাসান শাহরিয়ার মাহমুদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সীমান্তে দুইটি মরদহ পাওয়া গেছে। বিষয়টি নিয়ে অনুসন্ধান চলছে। পুলিশকে খবর দেওয়া হয়েছে। পুলিশ তদন্ত করে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠাবেন।

ডিসেম্বর ২৯.২০২২ at ১৪:১২:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/এসএমডি/এসআর