তোমার ভোট আমি নিজে মারব, এটাই হলো সুষ্ঠু ভোট

আবারো আলোচনায় বাঁশখালীর চাম্বল ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মজিবুল হক চৌধুরী। এবার তিনি বলেছেন, ‘তোমার ভোট আমি নিজে মারব। এটা হলো সুষ্ঠু ভোট। মুসলমানের কাজ হচ্ছে, একজনে নামাজ পড়াবে, এর পেছনে আরও পাঁচ হাজার মানুষ নামাজ পড়বে। এত মানুষের ভোট দেয়ার দরকারও নাই।’

গত ২ জুন নির্বাচনী প্রচারণার এক সভায় তিনি এসব কথা বলেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ধরনের বক্তব্যের ৫৪ সেকেন্ডের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। মুজিবুল হকের ওই ভিডিওতে দেখা যায়, তিনি উপস্থিত লোকজনের সামনে মাইক্রোফোনে এ কথা বলছেন।

জানা যায়, গত ২ জুন তার বাড়ির সামনে অনুষ্ঠিত নির্বাচনী সভায় তিনি এই বক্তব্য দিয়েছেন। ওই ভিডিওতে তাকে বলতে শোনা গেছে, ‘ভোট সুষ্ঠু করি আমরা, অসুষ্ঠু করিও আমরা। আমরা বললে সুষ্ঠু, না বললে অসুষ্ঠু। যেদিকে চাই সেদিকে। পৌরসভার ভোটের সময় আমাকে এক বিএনপি নেতা ফোন দিয়ে বলেছে, আমাকে মারতেছে, এভাবে গালি দিচ্ছে। আমি বললাম, কেন কথা বলতেছো, কথা বলিও না।

সে বলে, কেউ কেউ বলতেছে (স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী) মেয়র হবে, সুষ্ঠু ভোট হবে। আমি বলেছিলাম, সুষ্ঠু ভোট হবে সরকার লিখিত দিয়েছে নাকি? সে বলতেছে, কেন ইভিএমে ভোট হবে? আমি বলছি, ইভিএমে নিতে (ভোট) পারে না? সে বলে, না। আমি বললাম, তোমার ভোট আমি নিজে মারবো। এটা হলো সুষ্ঠু ভোট। মুসলমানের কাজ হচ্ছে একজনে নামাজ পড়াবে, এর পেছনে আরও পাঁচ হাজার মানুষ নামাজ পড়বে। এত মানুষের ভোট দেওয়ার দরকারও নাই।’

বক্তব্যের বিষয়ে নৌকা প্রতীকের এই চেয়ারম্যান প্রার্থী দৈনিক আজাদীকে বলেন, ‘এসব ভিডিও এডিট করা। আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে।’ এর আগে তার আরেকটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

জুন ০৪,২০২২ at ০৭:৩০:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/দআ/রারি