২৩ রানে ৪ উইকেট নেই বাংলাদেশের

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ দল। ওপেনার তামিম ইকবাল থেকে এই বিপর্যয়ের শুরু। আসিথা ফার্নান্দোর বল ঠিকঠাক টাইমিং করতে না পারায় স্লিপে কুশল মেন্ডিসের হাতে ক্যাচ তুলে নেন তামিম।

প্রথমটির মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও শূন্য রাতে বিদায় নেন তামিম। ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো বাজে এই অভিজ্ঞতার শিকার হলেন তিনি। এরপর ব্যাট করতে নামা নাজমুল হোসেন শান্তর ভাগ্য সহায় হয়নি। রান আউট হয়ে ২ রানে সাঝঘরে ফেরেন তিনি।

ফর্ম খরায় ভূগতে থাকা মুমিনুল ব্যাটিংয়ে নেমে থিতু হওয়ার আগেই ক্যাচ তুলে দিলেন উইকেটরক্ষকের হাতে। ডাক মেরে বিদায় নেন তিনি। কিছুক্ষণ একপ্রান্ত আগলে রাখা মাহমুদুল হাসান জয়ও শেষ পর্যন্ত উইকেট হারান আসিথার বলে। কুশলের হাতে ক্যাচ তুলে ১৫ রানে বিদায় নেন তিনি।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৪ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৩ রান। শ্রীলঙ্কা থেকে ১১৬ রান পিছিয়ে আছে টাইগাররা। ক্রিজে ব্যাট করছেন মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাস। এর আগে নিজেদের প্রথম ইনিংসে সব উইকেট হারিয়ে ৫০৬ রান সংগ্রহ করেছে শ্রীলঙ্কা; লিড ১৪১ রানের। ১৪৪ রানে অপরাজিত থেকে যান সেঞ্চুরিয়ান অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস।

আরো পড়ুন :
একইসঙ্গে মাঙ্কি পক্স আর করোনা হলে মৃত্যু অবধারিত!
সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের নির্বাচন, শেষ মূহুর্তে প্রচার-প্রচারণায় জমে উঠেছে

৫ উইকেট হারিয়ে ২৮২ রান নিয়ে চতুর্থ দিন শুরু করে শ্রীলঙ্কা। দিনের শুরুতে একদমই নির্বিষ বোলিং করেন বাংলাদেশের বোলাররা। আড়াই ঘণ্টার প্রথম সেশনে একমাত্র সুযোগ তৈরি করেছিলেন মুমিনুল হক। বৃষ্টির কারণে নির্ধারিত সময়ের আধঘণ্টা আগেই শুরু হয় চতুর্থ দিনের খেলা। দিনের শুরুটা করেন এবাদত হোসেন ও তাইজুল ইসলাম। এরপর একে একে সাকিব আল হাসান, খালেদ আহমেদ, মোসাদ্দেক হোসেন ও মুমিনুল হক আসেন বোলিংয়ে। কিন্তু কাজের কাজটি করতে পারেননি কেউই।

একমাত্র মুমিনুলই একবার উইকেট নেওয়ার কাছাকাছি গিয়েছিলেন। তার অফ স্টাম্পের বাইরে পড়া বল চান্ডিমাল ডিফেন্ড করতে গেলে স্টাম্পের পেছনে দাঁড়ানো লিটন দাসের হাতে যায়, আউট দিয়ে দেন আম্পায়ার। কিন্তু রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান লঙ্কান ব্যাটার। এর বাইরে পুরো সেশনজুড়েই ঠিকঠাক লাইন-লেন্থ খুঁজে পাননি বোলাররা। আগের দিন বিকেলে উইকেটে টার্ন দেখা গেলেও চতুর্থ দিনের প্রথম সেশনে দেখা যায়নি তেমন কিছুই।

মে ২৭,২০২২ at ১২:০৫:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/রাস/রারি