ইতালি যাওয়ার পথে সাগরে প্রাণ গেল মাদারীপুরের তরুণের

অবৈধভাবে সাগর পাড়ি গিয়ে ইতালী যাওয়ার পথে মাদারীপুর জেলার জয় তালুকদার (২২) নামে এক তরুনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) রাতে জয়ের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হয় তার পরিবার। ঝড়ো বাতাসে তিউনিউসিয়ার ভুমধ্যসাগরে থাকা অবস্থায় প্রচন্ড ঠান্ডায় মারা যায় মাদারীপুরের তরুণ জয় তালুকদার। নিহত জয় মাদারীপুর সদর উপজেলার পেয়ারপুর গ্রামের প্রেমানন্দ (পলাশ)তালুকদারের ছেলে।

এ সময় গুরুতর অসুস্থ হয় একই এলাকার আরো ৬জন।এরা হলেন মিন্টু, প্রদীপ, টুটুল, তন্ময়, রিয়াজ ও সবুজ। তার এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বলে জানিয়েছেন তাদের স্বজনরা।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, গত ২২ জানুয়ারি অবৈধভাবে সমুদ্রপথে লিবিয়া হয়ে ইঞ্জিনচালিত নৌকায় ইতালীর উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয় মাদারীপুর সদর উপজেলার পেয়ারপুর গ্রামের জয়সহ একই গ্রামের বেশ কয়েকজন। তিউনিসিয়ার ভুমধ্যসাগরে গেলে প্রবল ঝড়ো বাতাসের পর টানা ৬ ঘন্টা বৃষ্টিপাতের কবলে পড়ে তারা। এ সময় নৌকার চালক দিক হারিয়ে ফেলে। পরে ইতালীর পুলিশকে খবর দিলে তারা এসে সবাইকে উদ্ধার করে। এ সময় অসুস্থ বেশ কয়েকজনকে হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ। এর আগেই প্রচন্ড ঠান্ডায় মারা যায় জয়।

আরো পড়ুন:
ভোলায় অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য হত্যা মামলায় তিন আসামী গ্রেফতার
সংক্রমণ বাড়লেও মাস্ক পরায় অনীহা, বালাই নেই স্বাস্থ্যবিধির

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুর সদর উপজেলার বড়াইলবাড়ী গ্রামের সোনমিয়া খানের ছেলে জামাল খান এলাকার যুবকদের ইতালী নেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে প্রত্যেক পরিবারের কাছ থেকে নেয় ৭ লাখ টাকা করে। এই ঘটনার পর অভিযুক্ত দালাল জামাল খানের বাড়িতে গিয়েও তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। দীর্ঘদিন ধরে জামাল মানবপাচারের সাথে জড়িত রয়েছে বলেও এলাকায় বেশ গুঞ্জনও রয়েছে।

নিহত জয়ের বাবা প্রেমানন্দ (পলাশ) তালুকদার বলেন, ‘ধার- দেনা করে সাত লাখ টাকা দিয়েছি জামালকে। আমার ছেলে মারা গেলো অথচ জামাল একটু খোঁজও নিলো না।’

মাদারীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুল ইসলাম মিঞা জানান, ‘পরিবারের কাছ থেকে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

জানুয়ারি ২৮.২০২২ at ২১:০২:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/এএদহ/জআ