একটি ফেরি দিয়ে চলছে কাজিরহাট-আরিচা নৌরুটে গাড়ি পারাপার

বিজ্ঞাপন

ফেরি সংকটে প্রায় দু’মাস ধরে কাজিরহাট-অরিচা নৌরুট অচলাবস্থায় পড়ে আছে। শতশত যানবাহন ঘাট পারের অপেক্ষায় থাকলেও ঘাট-পল্টুন স্বল্পতার কারণে ফেরি বাড়ানো যাচ্ছে না। মাত্র একটি ছোট ফেরি চলছে এই নৌরুটে। একটি পল্টুনে চলছে যানবাহন লোড আন-লোডের কাজ। দুইপারে আটকে থাকছে ৪ শতাধিক যানবাহন ও মালবাহী ট্রাক।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সকালে পাবনার বেড়া উপজেলার কাজিরহাট ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক মাহবুবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, কয়েকমাস যাবত ঘাট অচলাবস্থায় থাকলেও পল্টুন স্বল্পতার কারণে ফেরি বাড়ানো সম্ভব হচ্ছে না।

ফেরিঘাটে ঘাট-পল্টুন বাড়ানোর জন্য কর্তৃপক্ষের নিকট বিষয়টি অনেকবার জানিয়েছি তারাই বিষয়টি বর্তমানে দেখভাল করছেন। পল্টুন ও ঘাট না বাড়ালে ফেরিঘাটের অচলাবস্থা কাটানো সম্ভব নয় বলে জানান তিনি।

সরেজমিনে দেখা যায়, ফেরিঘাট এলাকায় আগত ট্রাকচালকদের জন্য পর্যাপ্ত টয়লেট সুবিধা না থাকায় চরমভাবে কষ্টভোগ করছেন ঘাটে অবস্থানরত ব্যক্তিরা । ঘণ্টার পর ঘণ্টা, দিনের পর দিন ট্রাক, বাস, কার, মাইক্রোবাসচালকদের থাকতে হচ্ছে পারের অপেক্ষায়। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন ট্রাকশ্রমিক, নারী ও শিশুরা। ভাসমান দোকান থেকে অনিরাপদ খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন অনেকে।

কজিরহাট ফেরি ঘাটের টার্মিনাল সুপারিন্টেন্ডেন্ট আবুল কাইয়ুম বলেন, এরুটের বিদ্যমান সমস্যার সমাধানের একটাই পথ-সেটি হলো ঘাট করে বড় পল্টুন স্থাপন করে নতুন বড় বড় ফেরিবহরে যোগ করতে হবে। এর বিকল্প নেই।

আরো পড়ুন:
পেকুয়ায় স্বামীর নির্যাতনে গৃহবধূর মৃত্যু
নারী ও তরুণরা যেন কেন্দ্রে যেতে পারে, এ ভোটগুলো আমার: আইভী

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক কর্মকর্তা জানান, ‘প্রায় দু’মাসের অধিক সময় এ ঘাটে দিনরাত ৪ শ’ থেকে ৫শ’ ট্রাকের সারিবদ্ধ থেকেই যাচ্ছে। যতদিন আরো ২ থেকে ৩টি ফেরি এ রুটে যোগ না হবে; ততদিন সমস্যা থেকেই যাবে।’

কয়েকজন ট্রাকচালক বলেন নারায়ণগঞ্জ যাওয়ার জন্য যশোর থেকে ঘাটে এসে কয়েক দিন অবস্থান করছি। গতানুগতিক একই সমস্যা অর্থাৎ টয়লেট, গোসল-খাওয়া-থাকার সমস্যায় পড়েছেন পারের অপেক্ষামান রয়েছেন।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ পরিবহন করপোরেশনের কাজিরহাট অফিসের ব্যবস্থাপক মো. মাহবুবুর রহমান জানান, পাঁচটি ফেরির মধ্যে চারটি ফেরি চলাচলের বাইরে রয়েছে। ২ জানুয়ারি থেকে মেরামতের জন্য ফেরি কপোতি আরিচা ঘাটে নোঙর করা হয়েছে। এখন একটি ফেরি চলাচল করছে।

তিনি আরও বলেন, ‘দীর্ঘমেয়াদী সমস্যা দূরীকরণে আরও পল্টুন স্থাপন করে নতুন বড় ফেরি বাড়ালে ঘাট আগের মত ফিরে আসবে। কর্তৃপক্ষের নিকট একাধিক পল্টুন স্থাপন করে ফেরিঘাট সচল করার আহবান জানান তিনি।

জানুয়ারি ১৩.২০২২ at ৫:১৮:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/হরহ/মরই