বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

বিজ্ঞাপন

প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠার পর পরিবারকে জানালে পরিবার বিয়ের প্রস্তাব পাঠায় ছেলের বাড়িতে। এসময় ছেলের বাড়ি থেকে চাওয়া হয় মোটা অঙ্কের যৌতুক। এদিকে মেয়ের বাড়ি থেকে এতো টাকা যৌতুক দেয়া সম্ভব নয়। ফলে এখানে বিয়ের সম্ভাবনা না থাকায় প্রেমিকার বাড়িতে ছুটে যান তরুণী।

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার ময়না ইউনিয়নের রানীদৌলা গ্রামে প্রেমিকের তালাবদ্ধ বাড়িতে দুদিন ধরে অনশন করছেন ওই তরুণী। দাবি জানাচ্ছেন বিয়ের।

জানা গেছে, উপজেলার ময়না ইউনিয়নের রানীদৌলা গ্রামের শামচুর রহমান শেখের ছেলে মেহেরাব শেখ (১৮)। স্থানীয় একটি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণির প্রথম বর্ষের ছাত্র তিনি। পার্শ্ববর্তী আলফাডাঙ্গা উপজেলার কলেজ পড়ুয়া ওই তরুণীর সঙ্গে মেহেরাবের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

সম্প্রতি ওই ছাত্রীর পরিবার মেয়ের বিয়ের কথা বললে মেহেরাবের পরিবার মোটা অঙ্কের টাকা যৌতুক দাবি করে, যা মেয়ের পরিবারের পক্ষে যোগাড় করা অসম্ভব। বিয়ের আর সম্ভাবনা না থাকায় ওই ছাত্রী ১২ জানুয়ারি সন্ধ্যা থেকে প্রেমিকের তালাবদ্ধ বাড়ি উঠানে বিয়ের দাবিতে অনশন শুরু করেছেন।

আরো পড়ুন :
যেসব ভুলে আবারও করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন
থানচি ইতিহাসের বড় শোকাহত পরিবার কেমন আছেন?

বুধবার রাতে অনশনরত মেয়েকে ওই বাড়ির লোকেরা তাদের ঘরে আশ্রয় দিয়েছেন বলে প্রতিবেশীরা জানান। পরে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত তীব্র শীত আর কুয়াশার মধ্যে ওই প্রেমিকা তার প্রেমিকের বাড়ির উঠানে বসেছিলেন।

ময়না ইউনিয়ন (ইউপি) পরিষদের চেয়ারম্যান নাসির মো. সেলিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ওই এলাকার একজন চৌকিদারের মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পেরেছি। চৌকিদার আমার মোবাইলে ফোন করে জানায় একটি মেয়ে দুদিন ধরে প্রেমিকের বাড়ি রাণীদৌলা গ্রামে এসে বিয়ের দাবিতে অনশনে বসেছে।

এদিকে বিষয়টি জানার জন্য উভয় পক্ষকে থানায় আসতে খবর পাঠানো হয়েছে বলে বোয়ালমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নুরুল আলম জানান।

জানুয়ারি ১৪.২০২১ at ১৫:৫৫:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/রানি/রারি