করোনা ভাইরাস: ওমিক্রনের ঘরোয়া চিকিৎসা

বিজ্ঞাপন

সারা বছরই জ্বর, ঠান্ডা, সর্দি, কাশি, গলাব্যথা, বমিভাব লেগেই থাকে। এসব ‌উপসর্গ নিয়ে আগে মাথাব্যথা না থাকলেও বর্তমান পরিস্থিতিতে তা মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কেননা এসব উপসর্গ করোনা মহামারির নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের সাথে হুবহু মিলে যায়।

এসব উপসর্গ দেখা দিলে বা ওমিক্রন হলে বাড়িতেই চিকিৎসা নেওয়া যাবে। জেনে নেই যেভাবে ওমিক্রনের ঘরোয়া চিকিৎসা-

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনে আক্রান্ত হলে হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন নেই বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন। তবে তার মানে এই নয় ওমিক্রনে আক্রান্ত হলে চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই। আমাদের শরীর ওমিক্রনে আক্রান্ত হলে দীর্ঘমেয়াদে এর কী প্রভাব পড়বে তা বোঝার জন্য গবেষণায় নির্দিষ্ট সময় পার করতে হবে বলে গবেষকরা মনে করছেন।

আরো পড়ুন:
নড়াইলে ওমিক্রম প্রতিরোধের জন্য কোভিড-১৯ সংক্রামন জেলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত
মৌলালী মোড়ে লকডাউন বিরোধী মিছিল ও বিক্ষোভ

সম্প্রতি গবেষণা করে লন্ডনের কিংস কলেজের জেনেটিক এপিডেমিওলজির অধ্যাপক টিম স্পেক্টর জানিয়েছেন, সাধারন ফ্লু থেকে ওমিক্রন আক্রান্ত রোগীদের সহজেই যে দুটি উপসর্গ দেখে আলাদা করা যায় তা হলো বমি বমি ভাব এবং খিদে হ্রাস পাওয়ার সঙ্গে মাথা ঘোরানো। এ দুটি উপসর্গ দেখা দিলে দেরি না করে যত দ্রুত সম্ভব করোনা টেস্ট করিয়ে নেবেন।

ওমিক্রন পজিটিভ হলে কাঁচা আদা চিবিয়ে খেতে পারেন। এটা সর্দি, কাশির পাশাপাশি বমিভাব দূর করবে। দেহের প্রয়োজনীয় পুষ্টির জন্য কিছুক্ষণ পরপর খাবার গ্রহণ করুন। ডায়েটে রাখুন রঙিন সালাদ ও ফলমূল। প্রতিদিন ভিটামিন এ, সি, ডি সমৃদ্ধ খাবার খান। লেবুর রস আর আয়ুর্বেদ মশলা চা বা আদা চা পান করুন। তুলসি পাতার পেস্টের সঙ্গে মধু খেলে এ সময় দারুণ উপকার পাবেন।

জানুয়ারি ১২.২০২২ at ১৬:৪০:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/সনি/জআ