চিতলমারীতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান, ১০টি বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন

বিজ্ঞাপন

বাগেরহাটের চিতলমারীতে উপজেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ড যৌথ ভাবে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের অভিযান চালিয়েছেন। রবিবার (০৫ ডিসেম্বর) দুপুর ১২ টা থেকে এ অভিযান শুরু হয়। এ সময় পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গায় ৮টি ও সরকারি খাস খতিয়ানের ২টি ঘরের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। একই সাথে আগামী ৭ দিনের মধ্যে সকল অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেয়ার জন্য মাইকিং করা হয়েছে।

চিতলমারী উপজেলা প্রকৌশলীর দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, শহীদ মিনার চত্তর থেকে প্রস্তাবিত শেখ রাসেল স্টেডিয়াম পর্যন্ত ৫০০ মিটার লম্বা ২২ ফুট চওড়া রাস্তা হবে। সে জন্য এ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হচ্ছে।

ঘরের মালিক সুলতানা মল্লিক ও প্রধান শিক্ষক শৈলেন্দ্র নাথ বাড়ৈ বলেন, ওই যায়গা আমরা ২০১৪ সালে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিকট থেকে ৫ বছরের জন্য ইজারা নিয়েছি। পুনরায় ইজারার জন্য চালানের মাধ্যমে টাকা দিয়ে আমরা ২০২০ সালের ১২ মার্চ আবেদন করেছি। কর্তৃপক্ষ আমাদের টাকা গ্রহণ করেছেন। কিন্তু সম্পূর্ণ বিনা নোটিশে রবিবার দুপুরে আমাদের ঘর ভাংচুর করেছে, এটা অমানবিক।

আরো পড়ুন :
বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ, অন্যরকম আনন্দে মাতলেন সাকিব
সিলেটের কোর্টে সেই আপত্তিকর অবস্থায় নারী কনস্টেবল ক্লোজড

পানি উন্নয়ন বোর্ডের (মোল্লাহাট) উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী কৃষ্ণান্দু বিকাশ সরকার বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গা বর্তমানে ইজারা দেয়া বন্ধ রয়েছে। আমরা আগেই তাদের স্থাপনা সরিয়ে নিতে বলেছি।

তবে চিতলমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাইয়েদা ফয়জুন্নেছা বলেন, অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু হয়েছে। দখলকারীদের মৌখিক আবেদনের প্রেক্ষিতে আমরা ৭ দিনের সময় দিয়েছি। সাত দিনের মধ্যে অপসারণ না করলে আমরা উচ্ছেদের ব্যবস্থা গ্রহন করব।

ডিসেম্বর ০৫.২০২১ at ১৮:৫৫:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/সোসুমা/রারি