নরসিংদীতে গেমিং ল্যাপটপ কেনার জন্যে শিশু অপহরণ ও হত্যার মূল হোতাসহ গ্রেপ্তার ৪

বিজ্ঞাপন

নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার উত্তর বাখরনগর মধ্যপাড়া এলাকার চাঞ্চল্যকর শিশু ইয়ামিন (৮) হত্যার মূল রহস্য উদঘাটন, আসামী গ্রেপ্তার ও আলামত উদ্ধার করেছে নরসিংদী ডিবি পুলিশ। সকালে এক প্রেস ব্রিফিং এর মাধ্যমে সাংবাদিকদের এসব তথ্য উপস্থাপন করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সাহেব আলী পাঠান।

প্রেস ব্রিফিং এ জানানো হয়, টেলিভিশনে ইন্ডিয়ান সিরিয়াল সি আই ডি ও ক্রাইম পেট্রোল দেখে উদ্বুদ্ধ হয়ে গেমিং ল্যাপটপ কেনার টাকা জোগাড় করতেই ২৮ নভেম্বর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের দিন রায়পুরা উপজেলার উত্তর বাখরনগর মধ্যপাড়া এলাকার প্রবাসী জামাল মিয়ার শিশু পুত্র ইয়ামিনকে খেলার ছলে অপহরণ করে একই এলাকার সিয়াম উদ্দিন ও পিরিজকান্দি এলাকার রাসেল মিয়া।

পরে তারা “ম্যাজিক কল” এ্যপ্স এর মাধ্যমে নিজেদের মোবাইল নাম্বার গোপন করে ইয়ামিনের মা সামসুন্নাহারের কাছে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে। পরে মুক্তিপণের টাকা না পাওয়ায় অপহরণের দিন সন্ধ্যায় হাত-পা বাধা অবস্থায় শিশু ইয়ামিনকে মুখে বালিশ চাপা দিয়ে নির্মম ভাবে হত্যাকরে তারা। পরে ৪ দিন পর রাতে তার লাশ বস্তাবন্দি করে ডোবার মধ্যে ফেলে রাখে।

আরো পড়ুন :
যশোরে যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে, আহত ২০
কুয়েটে শিক্ষকের মৃত্যু, ৯ ছাত্রকে সাময়িক বহিষ্কার

এদিকে অপহরণের ঘটার ৩দিন পর ইয়ামিনের মা কয়েকজনকে সন্দেহ করে রায়পুরা থানায় একটি এজহার দাখিল করেন। এরই সুত্র ধরে রায়পুরা থানা পুলিশের সহায়তায় জেলা গোয়েন্দা সংস্থা আসামীদের গ্রেপ্তার করে স্কচটেপ, দুটি মোবাইল ফোন ও একটি বালিশ আলামত হিসেবে উদ্ধার করে হত্যা রহস্যের জট খুলেন। এঘটনার সাথে সম্পৃক্ত সুজন মিয়া ও কাঞ্চন মিয়া নামে আরো দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে ডিবি পুলিশ। এই হত্যাকাণ্ডের সাথে আরো কেউ জড়িত আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ডিসেম্বর ০৪.২০২১ at ১৭:৩৮:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/মোইফি/রারি