পেকুয়ার আলোচিত টাইগার বাহিনীর প্রধান আগ্নেয়াস্ত্রসহ আটক

বিজ্ঞাপন

কক্সবাজারের পেকুয়ায় ৩টি দেশীয় তৈরী আগ্নেয়াস্ত্র (এলজি), ৯টি কার্তুজসহ ইউসুফ (৩০) নামের এক শীর্ষ সন্ত্রাসীকে আটক করেছে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)-৭।

রবিবার রাত ১২টার দিকে উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের আফজলিয়া পাড়া এলাকার নিজ বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়। ইউসুফ একই এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে।

জানা যায়, র‍্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তি অভিযান চালিয়ে ইউসুফকে নিজের বাড়ি থেকে আটক করে। এসময় তার স্বীকার উক্তি মতে গোয়াল ঘর থেকে দেশীয় তৈরি তিনটি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। সোমবার রাতে ইউসুফকে পেকুয়া থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

র‍্যাব-৭ এর ডিএডি আবুল কালাম আজাদ এ প্রতিবেদককে বলেন, মগনামা ইউনিয়নের আফজলিয়া পাড়া এলাকায় মাদক বিকিকিনির খবর পেয়ে অভিযানে গেলে মোহাম্মদ ইউসুফ নামের ওই সন্ত্রাসী পালানোর চেষ্টা করে। তখন র‍্যাব সদস্যরা তাকে ধাওয়া দিয়ে আটক করে। পরে তার দেখানো মতে গোয়ালঘরের খড়ের ভেতর থেকে তিনটি অবৈধ অস্ত্র ও নয়টি কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে ইউসুফ জানিয়েছে, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে অস্ত্রগুলো মজুদ করা হয়েছে।

আরো পড়ুন:
এক রোপণে পাঁচবার ফলন!
গ্যাস বিস্ফোরণ মা ও শিশুর মৃত্যু

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ইউসুফ একজন দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী। তার নেতৃত্বে আফজলিয়া পাড়াসহ কয়েকটি গ্রাম কেন্দ্রীক গঠন করা হয় একটি বাহিনী। ওটি টাইগার বাহিনী নামে পরিচিত। ওই বাহিনীর প্রধান ইউসুফ। ১৫/২০ জনের অস্ত্রধারী, সন্ত্রাসীদের নিয়ে টাইগার বাহিনী আত্মপ্রকাশ পায় মগনামায়। নিজস্ব ক্যাডার বাহিনী গঠনের মাধ্যমে পুরো এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে আতংকিত এই টাইগার বাহিনী।

এ প্রসঙ্গে পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, অস্ত্রসহ আটক মোহাম্মদ ইউসুফের বিরুদ্ধে র‍্যাব-৭ বাদী হয়ে থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়ের করেছে এবং ধৃত সন্ত্রাসীকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

নভেম্বর ২৩.২০২১ at ১২:২৯:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/এএজ/জআ