ধীরে ধীরে নিম্নমুখী হচ্ছে জ্বালানি তেলের দাম

ছবি: সংগৃহীত
বিজ্ঞাপন

করোনাকালে তেলের দাম ব্যারেলপ্রতি শূন্য ডলারের নিচে নেমে গেলেও পরিস্থিতি স্বভাবিকের সাথে সাথে হু হু করে বাড়তে শুরু করে তেলের দাম। অক্টোবরের শেষে তেলের দাম এসে দাঁড়ায় ব্যারেলপ্রতি ৮৫ ডলারে যা ছিল সাত বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ রেকর্ড। নভেম্বর মাসের ১০ তারিখ থেকে তেলের দাম কমতে শুরু করেছে। নভেম্বরে এসে তেলের দাম ধীরে ধীরে নিম্নমুখী হচ্ছে। সর্বশেষ রোববার (১৪ নভেম্বর) ব্যারেল প্রতি তেলের দাম ছিল ৮০.৬৯ ডলার।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউএস ফেডারেল রিজার্ভ মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সুদের হার বাড়ানোর পরিকল্পনা করেছে। আর এ খবরে গত সপ্তাহের উত্তাল জ্বালানি তেলের বাজার নিম্নমুখী হয়েছে। তবে আশার কথা হচ্ছে, বিশ্ববাজারে তেলের দাম কমতে শুরু করেছে।

আরো পড়ুন:
মেকআপহীন ছবি দেখে চমকে ওঠেন শ্রাবন্তী
শিরোপা জিতে কত টাকা গেল অস্ট্রেলিয়ার পকেটে?

প্যারিসভিত্তিক ইন্টারন্যাশনাল এনার্জি এজেন্সি বা আন্তর্জাতিক জ্বালানি সংস্থার (আইইএ) পূর্বাভাস অনুসারে তেলের দাম বছর শেষে আরও কমতে পারে। চলতি বছর জানুয়ারি মাসে জ্বালানি তেলের দাম ছিল গড়ে প্রতি ব্যারেল ৪৯ ডলার। জুলাইয়তে এসে ৭৩ ডলার এবং আগস্টে গড়ে প্রতি ব্যারেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম ছিল ৭৪ ডলার। অক্টোবর মাসে এই দাম ৮৫ ডলার ছাড়িয়ে যায়। ধারণা করা হচ্ছিল শিগগিরই তা ১০০ ডলার হয়ে যাবে।

নভেম্বর ১৫.২০২১ at ১২:৩৫:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/সনি/জআ