ফেসবুক সেবাই বিঘ্ন:  ধনীর তালিকায় পিছিয়ে গেলেন জাকারবার্গ

বিজ্ঞাপন

সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ছয় ঘণ্টারও বেশি সময় বন্ধ থাকার কারণে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মার্ক জাকারবার্গকে বিপুল আর্থিক খেসারত দিতে হয়েছে।

এ সময়ে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার ছয়শ কোটি মার্কিন ডলারের সম্পদ কমেছে। এই বিপুল আর্থিক ক্ষতিতে জাকারবার্গের সম্পদ কমে দাঁড়িয়েছে বর্তমানে ১২ হাজার ১৬০ কোটি ডলারে।

ব্লুমবার্গের ধনকুবের সূচক অনুসারে, সম্পদ কমে যাওয়ায় বিশ্বের ধনীর তালিকা থেকেও নাম নিচে চলে গেছে জাকারবার্গের।

বিল গেটসের বর্তমান সম্পদ রয়েছে সাড়ে ১২ হাজার কোটি মার্কিন ডলারের। এই সম্পদ নিয়ে তিনি চতুর্থ স্থানে রয়েছেন। সম্পদের হিসাবে বিল গেটসেরও নিচে নেমে গেছে জাকারবার্গের অবস্থান। শীর্ষ ধনকুবেরের তালিকায় তার অবস্থান এখন পঞ্চম।

তাদের আগে রয়েছে এলন মাস্ক, জেফ বেজোস, বার্নার্ড আরনল্ডের নাম। সোমবার (৪ অক্টোবর) রাত ৯টার কিছু সময় পর থেকে এসব যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে বার্তা আদান–প্রদান বন্ধ হয়ে যায়। এতে বিপাকে পড়েন বিশ্বজুড়ে লাখো ব্যবহাকারী। রাত সাড়ে চারটার দিকে এই টুইট বার্তায় সার্ভার সচল হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

এদিকে সামাজিকমাধ্যম ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ ও ইনস্টাগ্রামে ব্যবহারে ব্যাহত হওয়ার জন্য দুঃখপ্রকাশ করেছেন মার্ক জাকারবার্গ। তিনি বলেন, আজকের এই বিভ্রাটের জন্য আমি দুঃখিত। আমি জানি যে যাদের প্রতি আপনি যত্নশীল, তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করতে এসব পরিষেবার ওপর আপনারা কতটা নির্ভরশীল।

ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও হোয়াটসঅ্যাপ আবার অনলাইনে ফিরে এসেছে।

মঙ্গলবার সকালে এক টুইটপোস্টে হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে, আজ যারা আমারদের পরিষেবা ব্যবহার করতে পারেননি, তাদের সবার কাছে ক্ষমা চাচ্ছি। ধীরে ও সতর্কতার সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপ কাজ করতে শুরু করেছে। ধৈর্য ধরার জন্য আপনাদের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। এ নিয়ে সবাইকে হালনাগাদ তথ্য জানিয়ে দেওয়া হবে।

আরো পড়ুন:
বিশ্বব্যাপী ফেসবুক সেবাই বিঘ্ন যে কারণে
রোলকলে একদিন অনুপস্থিত: ১১ মাসের হাজিরা বাতিলসহ বদলি ২১২ এসআই

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, বিভ্রাটের খবরে ফেসবুকের শেয়ারের দর সোমবার এক ধাক্কায় সাড়ে ৫ শতাংশ পড়ে গেছে। প্রায় এক বছরের মধ্যে শেয়ারবাজারে সবচেয়ে বাজে দিনটি পার করছে সামাজিকমাধ্যমটি।

২০১৯ সালেও বড় পরিসরে যান্ত্রিক জটিলতায় পড়েছিল তারা। তখন রক্ষণাবেক্ষণের কাজ করতে গিয়ে ওই সমস্যা দেখা হয়েছিল। ফেসবুকের সাবেক কর্মী ফ্রান্সিস হাউগেনের মার্কিন সিনেটে সাক্ষ্য দেওয়ার নির্ধারিত তারিখের ঠিক আগের দিন এই বিভ্রাটে পড়ল এ কোম্পানির সেবাগুলো। হাউগেনের হাত দিয়ে ফাঁস হওয়া ফেসবুকের অভ্যন্তরীণ নথির কারণে ব্যাপক সমালোচনার পাশাপাশি মার্কিন সিনেটের তদন্তের মুখে পড়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

ফেসবুকের মাসিক সক্রিয় ব্যবহারকারী এখন ২৯০ কোটি। অর্থাৎ বিশ্বব্যাপী এই পরিমাণ অ্যাকাউন্ট থেকে মাসে একবার হলেও সামাজিকমাধ্যমটিতে লগইন করা হয়। এই ব্যবহারকারীদের চার কোটি ৮০ লাখের বাস বাংলাদেশে। অপরদিকে বিশ্বব্যাপী ১২০ কোটি মানুষ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করছেন।

অক্টোবর ০৫.২০২১ at ১১:৫৭:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/সনি/জআ