তালার নগরঘাটার গাছে ঝুলছে অস্তিত্বহীন মাদ্রাসার সাইন বোর্ড!

বিজ্ঞাপন

সাতক্ষীরার তালা উপজেলার নগরঘাটা এলাকার একটি গাছে ঝুলছে ‘নগরঘাটা স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসার নামে ভৌতিক সাইন বোর্ড। মাদ্রাসার স্থাপিত সাল ইং-১৯৮৪ সাল।তবে এই নামে নগরঘাটায় কোন মাদ্রাসার অস্তিত্ব খুজে পাওয়াযায়নি। ২০ সেপ্টেম্বর ইউপি নির্বাচনের পর থেকে নগরঘাটা ঈমানের মোড় সংলগ্ন রাস্তার পাশের একটি গাছে সাইনবোর্ড ঝুলছে।তবে সাইনবোর্ডটি কে বা কারা কখন গাছে টানিয়েছে সঠিক ভাবে কেউ বলতে পারেনি।

স্থানীয় এলাকাবাসীরা জানান,নগরঘাটায় মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠার জন্য সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল করিম বিশ্বাস জমি জমি দান করেছিলেন বলে তারা শুনেছেন।কিন্তু গত প্রায় ৩৪ বছরেও সেই জায়গায় কোন মাদ্রাসার কোন ঘর বা ছাত্র/ছাত্রী দেখেননি। গত ইউপি নির্বাচনের পরেই হঠৎ করে কোথা থেকে ভৌতিক সাইনবোর্ডটি এই মোড়ের গাছে হাজির হলো।

এসময় অনেকেই হাসাহাসি করে বলছিলেন, এবারে নির্বাচনে করিমকে ফেল করিয়ে ক্ষান্ত হয়নি ।এবার তার মাদ্রাসার নামে দান করা জায়গা থেকে মেম্বর কে উচ্ছেদ করতে ভৌতিক সাইন বোর্ড টানিয়েছে।এসময় সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে সবাই চুপসরে কেটে পড়েন।

আরো পড়ুন :
চিলমারীতে ৮ম শেণীর ছাত্রীর আত্মহত্যা নিয়ে রহস্য
মাঝ সমুদ্রে বলিউড তারকাপুত্র মাদকসহ আটক-১০

এবিষয়ে সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল করিম বিশ্বাস এ প্রতিনিধিকে বলেন, তারা তিন ভাই মিলে মাদ্রাসা স্থাপণের জন্য ১৯৮৭ সালে ১৬৮৯ দাগে ৩১ শতক জমি ৫৩৫৪নংদলিল মুলে দান করেন। কিন্তু সেখানে ৩৪ বছরেও সেখানে কোন মাদ্রাসা নির্মাণ করা হয়নি। দলিলে উল্লেখ ছিল যে মাদ্রাসা স্থাপণ না করা হলে উক্ত দানের এই জমি মালিকদের অনুক‚লে ফেরত যাবে।

তিনি আরো বলেন, ‘আমি নির্বাচনে জয়ী হতে না পারায় একটি মহল তাদের অসৎ উদ্দেশ্য হাসিল করার পায়তারা করে যাচ্ছে। এর আগেও ভৌতিকভাবে স্বতন্ত্র এবতেদায়ী মাদ্রাসা স্থাপণের ঘটনায় ২০২০ সালে ২ নং ওয়ার্ডের সাবেক ওয়ার্ড সদস্য ও জমিদাতা আব্দুল করিম বিশ্বাস তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও পাটকেলঘাটা থানার ওসি বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছিলেন।এবারও তারা তাদের অসৎ উদ্দেশ্য হাসিল করার পায়তারা করে যাচ্ছে।

এ বিষয়ে সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল করিম বিশ্বাস তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও পাটকেলঘাটা থানার ওসিসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

অক্টোবর ০৩.২০২১ at ১৬:৩৮:০০ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/মোরোটি/রারি