লকডাউন কার্যকর করতে ব্যস্ত পেকুয়ার প্রশাসন

বিজ্ঞাপন

মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে দেশব্যাপী কঠোর বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনী, পুলিশ, বিজিবি ও আনসার সদস্যরা। তাদের সঙ্গে রয়েছে মোবাইল কোর্টও। সেই সাথে অঝোর বৃষ্টিতেও থেমে নেই কঠোর লকডাউন কার্যকর করতে কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলা প্রশাসনের অভিযান।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, লকডাউনের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার সকাল থেকেই বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে উপজেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বাজার ও স্থানগুলোতে কঠোর লকডাউন নিশ্চিত করতে অভিযান পরিচালনা করছেন উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মীকি মারমা, সেনাবাহিনীর পেকুয়ার ইনচার্জ মেজন শামন, পেকুয়া থানার এস আই সাইফুলসহ উপজেলার সকল ইউনিয়ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি ও গ্রাম পুলিশ।

শুক্রবার সকাল থেকেই উপজেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে চোখে পরে সেনাবাহিনী বিজিবি ও পুলিশ সদস্যদের উপস্থিতি। চলমান এই লকডাউন নিষেধাজ্ঞার আওতাধীন স্থানীয় মার্কেটের সকল দোকানপাট ও রাস্তায় যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। বাজার এলাকায় কিছু সংখক মানুষের চলাচল থাকলেও সকলের মুখেই মাস্ক নিশ্চিত করছে উপজেলা প্রশাসন।

বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে প্রশাসন শক্ত অবস্থানে থাকার কারণে অন্যান্য সময়ের তুলনায় লকডাউনের চিত্র অনেকটাই ভিন্ন। যারা ঘরের বাইরে বের হচ্ছে তাদেরকেই কারণ জিজ্ঞেস করা হচ্ছে। যারা জরুরি প্রয়োজনের কথা বলছেন তাদের কাছ থেকে চাওয়া হচ্ছে প্রয়োজনীয় প্রমাণ।

আরো পড়ুন:
কুরবানী উপলক্ষে পালনকৃত পশু বিক্রি নিয়ে মহাদুশ্চিন্তায় চৌগাছার খামারিরা
খুলনা বিভাগে করোনায় ২৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১২ শ

অপরদিকে যারা বিধিনিষেধ অমান্য করে ঘর থেকে বের হচ্ছেন তাদের বিরুদ্ধে নেওয়া হচ্ছে আইনানুগ ব্যবস্থা। চলমান এই লকডাউন চলবে আগামী ৭ জুলাই মধ্য রাত পর্যন্ত। উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি মীকি মারমা বলেছেন, আগামী ৭ জুলাই মধ্য রাত পর্যন্ত এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।