পাটগ্রাম সীমান্তে বাংলাদেশী যুবককে গুলি করে হত্যার পর লাশ নিয়ে গেছে বিএসএফ

বিজ্ঞাপন

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম সীমান্তে ভারতীয় গরু পারাপারের সময় রিফাত হোসেন (৩০) নামে এক বাংলাদেশী যুবককে গুলি করে হত্যা ও তার লাশ নিয়ে গেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ)।

মঙ্গলবার (২৯ জুন) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ওই উপজেলার জগতবেড় ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের শমসেরনগর কানিরবাড়ী সীমান্তের ৮৬২ নম্বর মেইন পিলারে এ ঘটনা ঘটে।

রিফাত হোসেন উপজেলার জগতবেড় ইউনিয়নের মুন্সিরহাট নাজিরগোমানী এলাকার ইসলাম হোসেনের ছেলে। সে অবৈধভাবে ভারতীয় গরু পারাপারের সাথে জড়িত।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ওই উপজেলার জগতবেড় ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের শমসেরনগর কানিরবাড়ী সীমান্তের ৮৬২ নম্বর মেইন পিলারে সীমান্ত রেখা এলাকায় ৭-৮ জন গরু চোরাকারবারি অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশের চেষ্টা করছিলেন।

এ সময় ভারতের কোচবিহার জেলার ১৪০ রাণীনগর ব্যাটেলিয়নের চোয়াঙ্গারখাতা ক্যাম্পের টহলদলের সদস্যরা তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়েন। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে রিফাত হোসেন ঘটনাস্থলেই মারা যায়। পরে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে রিফাতের মরদেহ বিএসএফ ও মাথাভাঙা থানা পুলিশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

জগতবেড় ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড ইউপি সদস্য রাবিউল হোসেন জানান, নিহত রিফাত হোসেনের ছবি দেখে তার বাবা লাশ শনাক্ত করেছে। তিনি আরও বলেন, ছবিতে নিহত রিফাতের গলায় ও মাথার পেছনে গুলির চিহ্ন দেখা গেছে।

রংপুর ৬১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের শমসেরনগর কোম্পানি কমান্ডার বেলাল হোসেন বলেন, মঙ্গলবার বিকেল ৫টার দিকে মরদেহ ফেরত নিয়ে আসার জন্য কোচ বিহার ১৪০ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের কোম্পানি কমান্ডারের সঙ্গে পতাকা বৈঠক করা হবে। সেখানে প্রতিবাদ জানানো হবে।

আরো পড়ুন:
তিন হাজার বছরের পুরনো কঙ্কালে ৮০০ আঘাতের চিহ্ন!
শুটিংয়ে ফিরতে চান নুসরাত!

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ ৬১ বিজিবির রংপুর ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল মীর হাসান শাহরিয়ার মাহমুদ বলেন, যুবক নিহতের বিষয়ে জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। বিএসএফের সাথে পতাকা বৈঠক করে বিস্তারিত জানানো হবে।