‘পিলখানা হত্যাকাণ্ড’ দিবস আজ : শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা

পিলখানা হত্যাকাণ্ডে শহীদ সেনাসদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে বনানী কবরস্থানে শোকার্ত স্বজনরা।

বাংলাদেশের ইতিহাসে এক বর্বরোচিত ঘটনা ‘পিলখানা হত্যাকাণ্ড’ দিবস আজ। ২০০৯ সালে ঘটে যাওয়া জঘন্যতম ওই ঘটনায় শহীদ সেনাবাহিনীর সদস্যদের ১২তম শাহাদাত বর্ষিকী রাষ্ট্রীয়ভাবে পালিত হয়েছ। প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতি শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বনানীর সামরিক কবরাস্থানে শহীদদের কবরে রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে তার সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাহ উদ্দিন ইসলাম পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন তার সামরিক সচিব মেজর জেনারেল নকিব আহমেদ।

পিলখানা হত্যাকাণ্ডে শহীদ সেনা সদস্যদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানান তাদের সামরিক সচিবরা। পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও তিন বাহিনীর প্রধানরা শ্রদ্ধা জানান।

পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান, এমপি ও সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ, ভারপ্রাপ্ত নৌবাহিনী প্রধান রিয়ার এডমিরাল এম আবু আশরাফ পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। বিমান বাহিনীর পক্ষ থেকে প্রধান এয়ার চীফ মার্শাল মসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-এর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলাম সম্মাননা জানান। জননিরাপত্তা বিভাগের পক্ষ থেকে জানান সিনিয়র সচিব।

এসময় শহীদ সেনাসদস্যদের স্বজন ও শোকার্ত পরিপারের সদস্যরাও শ্রদ্ধা জানান।

পুষ্পস্তবক শেষে শহীদদের প্রতি সম্মানে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এসময় সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যগণ শহীদ সেনাসদস্যদের সম্মানে স্যালুট প্রদান করেন। পরে শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করা হয়।

এছাড়াও এদিন সকল সেনানিবাসের কেন্দ্রীয় মসজিদে শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে সকল স্তরের সেনাসদস্যগণের উপস্থিতিতে মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাত করা হয়।