যশোরে বান্ধবীর বাড়িতে এসে দিনাজপুরের তরুণী ধর্ষণের শিকার

ধর্ষণ
ছবি: প্রতীকী

যশোর শহরের বারান্দীপাড়া বউবাজার এলাকায়  বান্ধবীর বাড়িতে বেড়াতে এসে দিনাজপুরের এক তরুণী (২০) ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে তিনি থানায় অভিযোগ করায় পুলিশ মানিক নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে।

অভিযুক্ত মানিক যশোর শহরের বারান্দীপাড়া বউবাজার এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে। পুলিশ  মঙ্গলবার ওই তরুণীকে আদালতে সোপর্দ করলে বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট তাঁর জবানবন্দি গ্রহণ করে তাকে নিরাপত্তা হেফাজতে পাঠিয়েছেন।

দিনাজপুরের ঐ তরুণী জানান, তিনি গত ২২ অক্টোবর যশোর শহরের বারান্দীপাড়া বউবাজার এলাকায় বান্ধবী মরিয়মের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। এখানে আসার পর বান্ধবী মরিয়মের চাচাতো ভাই মানিকের সঙ্গে তার পরিচয়। মানিক তাকে পছন্দ করেন এবং  বিয়ে করার প্রস্তাব দেন। ২৩ অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে মানিক ও তার বাবা-মা তাকে যশোর  শহরের একটি অফিসে নিয়ে একটি কাগজে স্বাক্ষর  করিয়ে নেন ।

এরপর ২৪ অক্টোবর সকাল পর্যন্ত মানিক তাকে একাধিক বার ধর্ষণ করে। এতে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তখন মানিক তার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন এবং একপর্যায়ে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন। এ অবস্থায় তিনি মানিকের এক আত্মীয়র কাছে আশ্রয় নেন।

পরে তিনি গোপনে ‘যশোর জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার’ নামে এক এনজিওর  কর্মকর্তাদের সহায়তা নেন। তারা বিষয়টি কোতয়ালী মডেল থানাকে জানালে পুলিশ মানিককে গ্রেফতার করে। এরপর ওই তরুণী মানিকের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। মানিক তাঁর দোষ  স্বীকার করেছে।

পুলিশ জানায়, ভিকটিম তরুণী মঙ্গলবার ২২ ধারার জবানবন্দি দিয়েছেন। আদালত তাকে নিরাপত্তা হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। অন্যদিকে অভিযুক্ত মানিককে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।