কার্পাসডাঙ্গা ও দর্শনা এলাকায় মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালিত

বিজ্ঞাপন

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা বাজার ও দর্শনা বাসস্ট্যাণ্ড এলাকায় মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালিত হয়েছে। মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দিলারা রহমা। বুধবার (১৪ই অক্টোবর) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এই অভিযান পরিচালিত হয়। এ সময় মাদক সেবন, মা ইলিশ সংরক্ষণ এবং সারের দোকানে মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালনা করে ৩ জনকে কারাদণ্ড প্রদান এবং ৪ জনকে অর্থদন্ড আরোপ করা হয়।

দামুড়হুদা উপজেলা প্রশাসন জানায়, বুধবার কার্পাসডাঙ্গা বাজার এবং দর্শনা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। উক্ত সময় সারের দোকানে যেয়ে দেখা যায় সরকার নির্ধারিত মূল্যের অধিক মূল্যে সার বিক্রয় করা হচ্ছে। যেমন, টিএসপি সার বস্তা প্রতি ১ হাজার ১ শত টাকায় বিক্রয় করার কথা থাকলেও বিক্রয় করা হচ্ছে ১ হাজার ৬ শত ৪০ টাকায়। ভারতীয় কীটনাশক বিক্রয় করছে কোনরকম লিগ্যাল অথরাইজেশন ব্যতীত। অহরহ বিক্রয় করছে মেয়াদ উত্তীর্ণ বালাইনাশক। অধিকাংশ দোকানেই নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও মূল্য তালিকা প্রদর্শিত হচ্ছে না।

ফলশ্রুতিতে, কৃষক বাঁচলে বাঁচবে দেশ বলা হলেও এসব অসাধু ব্যবসায়ীদের জন্য সাধারণ কৃষক আজ হুমকীর সম্মুখীন। সরকারের সদিচ্ছা থাকা সত্ত্বেও কৃষির উন্নয়ন ব্যাহত হচ্ছে এসব কালো ব্যবসায়ীদের প্রভাবে। এসব অপরাধের মাত্রা বিবেচনায় ১জন সার ব্যবসায়ীকে ১৪ দিনের কারাদন্ড দেওয়া হয় এবং ৪ জন ব্যবসায়ীকে মোট ১৩ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেওয়া হয়। এছাড়া মাদক সেবনের অপরাধে দুই মাদকসেবীকে ১ মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। অভিযানের সময় দর্শনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহাব্বুর রহমানসহ অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

১৪ অক্টোবার, ২০২০ at ১৭:২৮:৪২ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/টিআর/এমএএস