চীন-ভারত যুদ্ধাবস্থা বলে সতর্ক করল যুক্তরাষ্ট্র

লাদাখে ভারত-চীন সীমান্তে একের পর এক আলোচনার পরও কমেনি উত্তেজনা। ভারত অভিযোগ করেছে, সীমান্তের খুব কাছে ৬০ হাজার চীন সেনা ভারী অস্ত্রসহ নিয়ে আছে।

ভারতীয় সেনাবাহিনী চীনকে মোকাবিলায় প্রস্তুত। তাদের জন্য আসছে ভারী অস্ত্র, গোলাবারুদসহ সুরক্ষা সরঞ্জাম। প্রথম চালান ভারতীয় বিমান বাহিনীর জাম্বো ট্রান্সপোর্ট এয়ারক্রাফট সি-সেভেনটিন গ্লোবমাস্টারে করে কাশ্মীরের লেহ এয়ারবাসে পৌঁছিয়েছে। ভারতীয় বিমান বাহিনীর এক কর্মকর্তা জানান, একাধিক আলোচনার পরও বেইজিং কথা শুনছে না।

ভারতের দাবি চীন লাদাখের লাইন অব একচুয়াল কন্ট্রোল-এলএসিতে ৬০ হাজারের বেশি সেনা মোতায়েন করেছে। বেইজিংয়ের সঙ্গে আলোচনা করে কোনো লাভ নেই বলেও মন্তব্য নয়াদিল্লির। তাই মোদি প্রশাসনের ছেড়ে কথা না বলার হুঙ্কার। এ অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্র ভারতের পাশে থাকার কথা পুর্নব্যক্ত করেছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পে সীমান্তে চীনা সেনাবাহিনীর তৎপরতা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

সম্প্রতি টোকিওতে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা বৈঠক করেন। সেখানে ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল, দক্ষিণ চীন সাগর এবং লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় চীনের সামরিক আগ্রাসন রুখতে আলোচনা হয়। ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেতৃত্বে চীন বিরোধী জোট গঠনের কাজ শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র বলেও জানানো হয়।

১১ অক্টোবার, ২০২০ at ১৮:৫৩:৪২ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/ডিডি/এমএএস