সবাই কাঁদলেন, আলিয়া করলেন ভিডিও

করোনাভাইরাসে চলছিল লকডাউন। ছেলের বিয়ের আনন্দটা আর উপভোগ করা হয়ে উঠছিল না করোনার কারণে। কিন্ত কে জানতো, দেখার ভাগ্যটা একেবারেই আর হয়ে উঠবে না। ইচ্ছেটা আর পূরণ হবে না! তবে ঋষি কাপুরের বিদায়ের সময় আলিয়া ভাটের উপস্থিতি গুঞ্জণটা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। যদিওবা আগ থেকেই ছেলে রণবীরের সাথে আলিয়ার বিয়ের কথা চলছিল।

অসুস্থতার খবর পাওয়ার সাথে সাথেই হবু শ্বশুরকে শেষ দেখা দেখতে হাসপাতালে ছুটে যান মহেশ ভাটের ছোট মেয়ে আলিয়া। হাসপাতালে আলিয়ার উপস্থিতি রণবীর-আলিয়ার বিয়ের গুঞ্জনের মাত্রা আরও বাড়িয়েছে। ঋষিকে দেখতে গিয়ে আলিয়ার একটি ছবি ভাইরাল হয়। ছবিতে দেখা যায়, সবাই কান্নারত অবস্থায়। এসময় হাতে মোবাইলে ভিডিও করছিলেন আলিয়া। এ নিয়ে সমালোচনাও হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে। যদিওবা আলিয়া ভিডিও করছিলেন নাকি ভিডিও কলে কাউকে দেখাচ্ছিলেন তা স্পষ্ট নয়।

ঋষি কাপুরের শেষকৃত্যের সময় যে ১৬ জন ব্যক্তি উপস্থিত থাকার অনুমতি পেয়েছিলেন তার মধ্যেও ছিলেন আলিয়া। হবু শ্বশুরকে চোখের জলে শেষ বিদায় জানিয়েছেন তিনি।

‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’ এবং ‘কাপুর অ্যান্ড সন্স’ সিনেমাতেও ঋষি কাপুরের সঙ্গে অভিনয় করেছিলেন আলিয়া। সব মিলিয়ে কাপুর পরিবারের সঙ্গে নিজেকে বেশ ভালোভাবেই জড়িয়ে নিয়েছেন আলিয়া। কিন্তু এই সংসারের বউ হয়ে যাওয়ার আগেই এলোমেলো হয়ে গেল সব।

ঋষি কাপুর দীর্ঘদিনই ক্যানসারে ভুগছিলেন। গত বছরই সেপ্টেম্বর মাসে তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে চিকিৎসা সেরে ফেরেন। এরপর ভালোই ছিলেন তিনি। হঠাৎ মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি হাসাপাতালে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ঋষি কাপুর। বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় মুম্বাইয়ের চন্দনওয়াড়ি শ্মশানে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।