অসহায় শাহারণ বিবির ঘর তুলে দিবে কে ?

হতদরিদ্র শাহারণ বিবি। ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বংকিরা গ্রামের এক বিধবা নারী। তিনি বংকিরা পূর্ব পাড়ার মরহুম এরশাদ আলী মন্ডলের দ্বিতীয় স্ত্রী শাহারন বিবি (শাহারি)। স্বামীর পাওয়া জমিজাতি বন্ধক রেখে ছোট ছেলে জাহিদকে পাঠায় বিদেশে। সেখান থেকে প্রতারিত হয়ে দেশে ফিরে আত্মহত্যা করে জাহিদ। বড় ছেলে আশাদুল ইসলাম আশাও বিদেশ ফেরৎ। কিন্তু কেও সচ্ছল নয়। সবাই এখন দিনমজুর।

আরো পড়ুন :
ঝিনাইদহে চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীসহ ৮ জন করোনায় আক্রান্ত
ধর্ষনের অভিযোগে ফুফা গ্রেফতার
ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় নারীর মৃত্যুর অভিযোগ !

মহামারি করোনা ভাইরাসের ফলে খুব কষ্টে দিনাতিপাত করছে শাহারণ বিবি। এ পর্যন্ত কোন সরকারী সাহায্য পায়নি। টানাটানির সংসারের মাঝে তার মাথা গোজার একমাত্র টিনের ঘরটি ঝড়ে লন্ডভন্ড করে দিয়েছে। এখন তার কোন মাথাগোজার ঠাঁই নেই। নিরুপায় হয়ে উঠেছে বড় ছেলে আশার ভাঙ্গাচোরা ঘরে। মাথাগোজার ঠাই পেলেও এক মুঠো খাবারের জন্য নিত্যদিন শাহারণ বিবির যুদ্ধ করতে হয়। শাহারন বিবি (শাহারি) জানান, এক সময় তার সংসারে সবই ছিল। এখন তিনি নিঃস্ব রিক্ত। থাকার জন্য তার একটি ঘর প্রয়োজন।

তিনি জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে আর্থিক সহায়তা কামনা করেনে। বিষয়টি নিয়ে সাধুহাটী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কাজী নাজির উদ্দীন জানান, বংকিরার শাহারন বিবির দুর্দশার খবর কেও আমাকে বলেনি। জানালে আমি তাকে ১০ টাকার চালের কার্ড ও খাদ্য সহায়তা প্রদান করতাম। তিনি বলেন বিষয়টি আমি খোজ নিয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছি। এবিষয়ে বিস্তারিত জানতে বংকিরা গ্রামের ঢাবি ছাত্র এনামুলের ০১৯৮৫৫৬১৫৩০ এই নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারেন।

এপ্রিল ২৮, ২০২০ at ১৮:১৪:৪২ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/কেএল/এএডি