জমির ধান নষ্ট করার অভিযোগ প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে

জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার বানাইচ গ্রামের বেলাল হোসেন নামের এক কৃষকের এক বিঘা জমির ধান নষ্ট করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। অভিযুক্তরা হলো- একই গ্রামের মৃত মোয়াজ্জেমের হোসেনের দুই ছেলে গোলোম মোস্তফা ও গোলাম কিবরিয়া।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী বেলাল হোসেন বাদী হয়ে অভিযুক্ত দু’জনের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

থানার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, রবিবার (১৮ এপ্রিল) সন্ধার দিকে মৃত মোয়াজ্জেমের হোসেনের দুই ছেলে গোলোম মোস্তফা ও গোলাম কিবরিয়া মিলে মেশিন দিয়ে বিষাক্ত ঔষধ দিয়ে স্প্রে করে কৃষক বেলাল হোসেনের এক বিঘা জমির বোরো ধান নষ্ট করে ফেলে। পরের দিন সকালে বেলাল মিয়া জমিতে গিয়ে দেখে তার জমির ধান সব পুরে গিয়ে সাদা আকার ধারন করেছে।

বেলাল হোসেন বলেন, তাদের সঙ্গে জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে ঝামেলা হয়েছিল, সেই শক্রতার জেরে আমার জমির ধান নষ্ট করে ফেলেছে। আমি একজন গরিব কৃষক, অনেক কষ্ট করে এই জমিতে ধান চাষ করেছি। এতে আমার প্রায় ২৫/৩০হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমি তাদের শক্র হতে পারি, কিন্তু আমার জমির ফসল কি ক্ষতি করেছে তাদের। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।
ক্ষেতলাল থানার অফিসার ইনচার্জ সিদ্দিকুর রহমান জানান, জমির ফসল নষ্ট করা চরম অপরাধ। তদন্ত সাপেক্ষে প্রকৃত অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তবে এ বিষয়ে অভিযোক্ত দু’জনের সাথে ফোনে কথা হলে গোলাম মোস্তফা ও গোলাম কিবরিয়া জানান, এই জমিটি নিয়ে গত কয়েক বছর ধরে আমাদের সাথে মামলা চলছে তাই তারা নিজেরাই জমির ধান নষ্ট করে আমাকে ফাঁসানো চেষ্টা করছে। আর জমিতে বিষ দেওয়ার সাথে কোন ভাবেই তারা সম্পৃক্ত নয় বলেও জানান তারা।

এপ্রিল ২৬, ২০২০ at ১৭:৫০:৪২ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আক/এএম/এএডি