চিকিৎসকের অবহেলায় রোগীর মৃত্যু, হাসপাতাল ভাংচুর

পটুয়াখালীতে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় আইরিন আক্তার মুন্নী নামে এক রোগীর মৃত্যুর হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় নিহত রোগীর বিক্ষুদ্ধ স্বজনরা ঘটনার পর পরই ঐ হাসপাতালে ব্যাপক ভাংচুর চালায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে হাসপাতাল ক্যাম্পাসে পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।

নিহতের স্বজনরা জানান, শহরের সদর হাসপাতাল সংলগ্ন কালিকাপুর এলাকা থেকে এক সন্তানের জননী আইনির আক্তার মুন্নী এ্যাপেন্ডিস হাইটিস অপারেশন করাতে চৌরাস্থা এলাকার সোনাভানু স্পেসালাইজড হাসপাতালে ভর্তি হন।
আরও পড়ুন: থেমে নেই নদীপথে কাঠ পাচার

সন্ধ্যায় তিন সদস্যের একটি মেডিকেল টিম তার অপারেশন শুরু করে। অপারেশন শুরুর পর পরই রোগীর চিৎকারে তার স্বজনরা ওটির ভেতরে যেতে চাইলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাতে বাঁধা দেয়। একঘন্টা পর যখন স্বজনদের রোগীর কাছে নিয়ে যাওয়া হয় তখন রোগী মারা যায়। স্বজনদের অভিযোগ ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু হয়েছে। তারা রোগী বরিশাল নিয়ে যেতে চাইলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তা করতে দেননি।

এদিকে দায়িত্বরত ডাক্তারদের দাবী অজ্ঞান করার জন্য মেডিসিন প্রয়োগের পর পরই রোগীর খিচুনী শুরু হয়। পরে তারা বিশেষজ্ঞ ডাক্তার নিয়ে আসেন এবং সর্বোচ্চ চিকিৎসা প্রদান করেন। কিন্তু রোগীর খিচুনী থাকায় তাঁকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি।

দেশদর্পণ/এসসি/এসজে