চাঁদা না দেওয়ায় ইউপি সদস্যকে মারধর, প্রতিবাদে গ্রামবাসীদের মানবববন্ধন

বরগুনার তালতলীতে চাঁদার টাকা না দেওয়ায় জাহাঙ্গীর(৪৩) নামের এক ইউপি সদস্যকে মারধর প্রতিবাদে মানবববন্ধন করেছে গ্রামবাসী।

মঙ্গলবার(০৩ মার্চ) দুপুর ১টার দিকে কচুপাত্রা সরকারি স্কুল সড়কে সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন গ্রামবাসী। এ মানববন্ধনে আংশ নেন এলাকায় ৩ শতাধিক মানুষ।

সোমবার (০২ মার্চ) রাত অনুমানিক ৯টার দিকে দক্ষিন কচুপাত্রার স্থানীয় রশিদ মাষ্টার বাড়ির সামনে বসে এ ঘটনা ঘটে। উপজেলার ৪ নং শারিকখালী ইউনিয়নের ৬ ওয়ার্ডের সদস্য।

জাহাঙ্গীরের পরিবার সূত্রে জানা যায়, বরগুনা জেলা পরিষদের তালতলী উপজেলার শারিকখালী ইউনিয়নে একটি খাস পুকুর খননের কাজ পায় ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর হাওলাদার। এই পুকুরটি খননের শুরু থেকেই স্থানীয় বশার জোমাদ্দার ও সাগর জোমাদ্দার বিভিন্ন সময়ে চাদা দাবি করে আসছেন। চাঁদা না দেওয়াতে কিছু দিন আগে একবার ইউপি সদস্যর উপর হামলা চালায় তারা। পরে স্থানীয় ভাবে সমাধান হয়ে যায় বিষয়টি। এইর জের ধরে গতকাল রাতে একা পেয়ে জাহাঙ্গীরের ওপর ফের দ্বিতীয় বার হামলা চালায় তারা। এতে গুরুত্বর আহত হয় তিনি। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে আমতলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
আরও পড়ুন: গ্রামবাসীর সঙ্গে বিজিবির সংঘর্ষ, নিহত ৬

আহত ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর হাওলাদার বলেন তারা সব সময়ই আমার কাছে পুকুর খননের বিষয়ে চাঁদা দবি করে আসছে। এই চাঁদা না দেওয়াতেই আমার উপর দ্বিতীর বারের মত হামলা চালায় বশার জোমাদ্দার ও সাগর জোমাদ্দারসহ ৫ থেকে ৬ জন অপরিচিত লোক।

এদিকে সাগর জোমাদ্দারের বাবা কাশেম জোমাদ্দার বলেন জাহাঙ্গীর যখন ইউপি নির্বাচন করেছিলো তখন বশারের কাছ থেকে ৩ লাখ টাকা নেয়। এই টাকা থেকে তারা ৫০ হাজার টাকা পরিশোধ করেন। পরে বাকি টাকা চাইতে গেলে জাহাঙ্গীরের লোকজন উল্টা বশার ও সাগরের উপর হামলা চালায়। এতে দুইজনই আহত অবস্থায় পটুয়াখালী হাসপাতালে ভর্তি আছে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বাসার বাদশা তালুকদার বলেন, আমি ব্যক্তিগত কাজে পটুয়াখালী আসছি। এ ঘটনা শুনেছি। তবে দুই গ্রুপের লোকজনই আহত হয়েছে বলে জেনেছি।

দেশদর্পণ/এমআর/এসজে