মাদকসেবনের দায়ে চাকরিচ্যুত হলেন রেলওয়ে টিকেট পরীক্ষক

অসদাচরণ, দায়িত্বে অবহেলা ও মাদক সেবনের দায়ে বাংলাদেশ পশ্চিমা ল রেলওয়ের ট্রেন টিকেট পরীক্ষক (টিটিই) মহিবুল হোসেনকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। রোববার বিকেলে এক অফিস আদেশে তাকে চাকরিচ্যূত করা হয়।

পশ্চিমা ল রেলওয়ের বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (পাকশী) ফুয়াদ হোসেন আনন্দ সাংবাদিকদের জানান, মহিবুল হোসেনের বিরুদ্ধে যাত্রীদের সঙ্গে অসদাচরণ, দায়িত্বে অবহেলা ও মাদক সেবনের অভিযোগ উঠায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। দায়িত্বে অবহেলার কারণে তার বিরুদ্ধে গুরুদÐ আরোপের জন্যে নোটিশ ফর্ম ‘বি’ জারি করা হয়। নোটিশ ফর্ম ‘বি’ জারির পর শাস্তি আরোপের জন্যে ‘টি আই (সি)’র দ্বারা তদন্ত করা হয়। পরে তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়।
আরও পড়ুন: ধুুলাবালি থেকে রক্ষা পেতে শৈলকুপার ভাটই বাজারে অবরোধ

তিনি আরও জানান, তার বিরুদ্ধে মোট নয়টি শাস্তি চলমান। চাকরি জীবনে তিনি বহুবার বরখাস্ত হয়েছেন। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, মহিবুল হাসানের বিরুদ্ধে কাজের পরিবেশ নষ্ট, মাদক সেবন এবং অসংখ্যবার যাত্রীদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহারের অভিযোগ ওঠে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গত ২৯ জানুয়ারি মহিবুল হোসেন ভারপ্রাপ্ত সিনিয়র ইন্সপেক্টর অব টিটিইজ আব্দুল মাবুদকে প্রাণনাশেরও হুমকি দেন। এতে টিটিইজ আব্দুল মাবুদ তার বিরুদ্ধে ঈশ্বরদী রেলওয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। সর্বশেষ ২২ ফেব্রæয়ারি তিনি চিফ মেডিক্যাল অফিসার (পশ্চিম) বেগম শামীম আরা ও তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সীমান্ত ট্রেনে নেশাগ্রস্ত অবস্থায় দুর্ব্যবহার করেন। পরে কর্তৃপক্ষের নির্দেশ অমান্য, দায়িত্ব পালনে অসচেতনতা, উদাসীনতা ও অবহেলা প্রদর্শনের দায়ে মহিবুল হোসেনকে দায়ী করা হয়।

দেশদর্পণ/এমআরআর/এসজে