ধুুলাবালি থেকে রক্ষা পেতে শৈলকুপার ভাটই বাজারে অবরোধ

রাস্তা সংস্কার করতে গিয়ে মাসের পর মাস ফেলে রাখার কারণে ধুলাবালিতে অতিষ্ঠ এলাকাবাসি অবশেষে ফুঁসে উঠেছে। সোমবার তারা বিপর্যস্ত জনজীবন থেকে বাঁচার আকুতি জানিয়ে রাস্তায় নেমে আসে।

সকালে তারা জেলার শৈলকুপা উপজেলার ভাটই বাজারে সড়ক অবরোধ করে রাখেন। রাস্তায় পানি ছিটানোসহ দ্রুত রাস্তা মেরামতের দাবীতে তারা সকল প্রকার যান চলাচল বন্ধ করে দেন।

এ সময় তারা ঝিনাইদহ সড়ক ও জনপথ বিভাগ ও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে শ্লোগান দিতে থাকে। বেআইনী ভাবে মারধর করা হয় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের পানির গাড়ির চালককে। তাকে বেদম প্রহার করা হয়েছে বলে সওজের এক কর্মকর্তা জানান। খবর পেয়ে শৈলকুপা থানার পুলিশ ও র‌্যাব ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। পরে জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথের হস্তক্ষেপে জনতা অবরোধ প্রত্যাহার করে নেন।
আরও পড়ুন: অবৈধ ট্রলির ধাক্কায় মটর সাইকেল আরোহী নিহত

ঝিনাইদহ পুলিশের শৈলকুপা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আরিফুর রহমান জানান, সড়কে ধুলাবালি উড়তে থাকায় স্থানীয়রা সড়ক অবরোধ করে। পরে জেলা প্রশাসকের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে এলাকাবাসি তা প্রত্যাহার করে নেন।

স্থানীয়রা জানান, শৈলকুপার ভাটই বাজার ও গাড়াগঞ্জ বাজারে প্রায় ৩ কিলোমিটার সড়ক সংস্কারের নামে ফেলে রাখা হয়েছে। ফলে ধুলাবালিতে মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে উঠছে। ঝিনাইদহ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জিয়াউল হায়দার গনমাধ্যম কর্মীদের জানান, মহাসড়কের আশপাশে ডোবা, জলাশয় না থাকায় পানি দিতে সমস্যা হচ্ছে। তিনি বলেন এখন থেকে বিশেষ ব্যবস্থায় নিয়মিত পানি দেয়ার চেষ্টা করা হবে। বিষয়টি নিয়ে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা হাবিবুল আলম সম্পদের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ফোন সিরিভ করেন নি।

দেশদর্পণ/কেএল/এসজে