তেলের পাইপলাইনে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, জ্বলছে আসাম

ভারতের আসামে ডিব্রুগড়  জেলায় একটি তেলের পাইপলাইনে ভয়াবহ বিস্ফোরণ হয়েছে। প্রদেশটির কাছে ছোট একটি নদীতে দু’দিন আগে এ বিস্ফোরণ ঘটে। আসামে চলমান পরিস্থিতি নব্বইয়ের দশকের কথা মনে করিয়ে দিচ্ছে। সে সময় বারবার তেলের পাইপলাইনগুলোকে নিশানা করছিল উলফা।

ডিব্রুগড় ও তিনসুকিয়া জেলায় এ ধরনের ঘটনা হয়ে গিয়েছিল গা সওয়া। তবে পরিস্থিতি পাল্টে গেছে। শান্তি ফিরছে উত্তরপূর্বের অশান্ত রাজ্যটিতে। এ পরিস্থিতিতে ফের পাইপলাইনে বিস্ফোরণ ঘটল ডিব্রুগড় জেলায়।

সর্বশেষ প্রাপ্ত খবর জানা গেছে, বুড়ি দিহিং নদীর মধ্যে দিয়ে যাওয়া একটি পাইপে বিস্ফোরণ ঘটেছে। ফলে ডিব্রুগড়ের নাহরকাটিয়ার দীঘলিবিল এলাকার চাচনি গ্রামের কাছেই নদীবক্ষে দাউদাউ করে জ্বলছে আগুন।

স্থানীয়রা বলছেন, শুক্রবার গভীর রাতে বিস্ফোরণটি ঘটেছে। গত তিনদিন ধরেই জ্বলছে আগুন। দমকল, অয়েল ইন্ডিয়া ও ডিব্রুগড় তেল শোধনাগারের কর্তৃপক্ষের কাছে খবর গেলেও কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।
আরও পড়ুন: চীনে যাওয়া পাইলট-ক্রুদের ঢুকতে দিচ্ছে না অন্যদেশ

গ্রামবাসীর দাবি, নদীর মধ্যে দিয়ে যাওয়া পাইপটি পানি সরবরাহের জন্য ব্যবহার করা হয়। কোনভাবে সেটিতে অয়েল ইন্ডিয়ার দুলিয়াজান প্লান্ট থেকে অপরিশোধিত তেল ঢুকে যায়। তারপরই ঘটে ভয়াবহ বিস্ফোরণ।

এদিকে, পুরো ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে ওই এলাকায়। যে কোনো মুহূর্তে আগুন আরও ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। দুর্ঘটনার পাশাপাশি নাশকতার দিকটিই উড়িয়ে দিচ্ছেন না তারা। পানির পাইপে কীভাবে তেল এলো সেই কথাই ভাবিয়ে তুলছে অনেককে।

প্রসঙ্গত, ডিব্রুগড়, তিনসুকিয়া, শিবসাগর ও যোরহাট জেলায় বিশেষভাবে সক্রিয় বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন উলফা (স্বাধীন)। এই বিস্ফোরণের নেপথ্যে তাদের হাত থাকতে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই। সদ্য স্বাক্ষরিত হয়েছে ঐতিহাসিক ‘বড়ো চুক্তি’।

দেশদর্পণ/এসজে