নিখোঁজ আশরাফুলকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার

যশোরের চৌগাছা থানা পুলিশের সহযোগীতায় নিখোঁজের এক দিন পর উদ্ধার হল আশরাফুল ইসলাম (৫৫)। প্রযুক্তি ব্যবহার করে মঙ্গলবার গভীর রাতে তাকে চুয়াডাঙ্গা জেলার সদর উপজেলার সরজগঞ্জ থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয় বলে জানা গেছে। বর্তমানে তিনি চৌগাছা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। নিখোঁজের চাচাতো ভাই প্রভাষক অমেদুল ইসলাম জানান, আশরাফুল ইসলাম

নিখোঁজ হওয়ার খবরে আমরা সংশ্লিষ্ঠ থানায় একটি জিডি করি। জিডির সূত্র ধরে থানা পুলিশ তাকে উদ্ধারে ব্যাপক চেষ্টা চালায়। পুলিশ ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে নিশ্চিত হয় নিখোঁজ আশরাফুল ইসলাম চুয়াডাঙ্গা জেলায় অবস্থান করছেন। থানা পুলিশ তাদের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করে চুয়াডাঙ্গা জেলায় যাওয়ার প্রস্তুতি নেয়। এ সময় চৌগাছার ঐশী ব্রিক্সের মালিক হামিদ মল্লিক থানায় উপস্থিত হয়ে পুলিশকে জানায় তার ব্যবহৃত মোবাইলে একটি ফোন আসে এবং বলা হয় আশরাফুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি চুয়াডাঙ্গা জেলার ছয়ঘের গ্রামে সড়কের পাশে অচেতন অবস্থায় পড়ে আছে। পুলিশ বিষয়টি আরও নিশ্চিত হয় এবং রাত সাড়ে ১১ টার দিকে চুয়াডাঙ্গার উদ্যোশে রওনা হয়। সরজগঞ্জ পুলিশ ফাড়ির সহযোগীতায় আহত আশরাফুলকে উদ্ধার করে চৌগাছা হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়।
আরও পড়ুন: ৭ বছরের শিশু ধর্ষণ: ধর্ষক হবি আটক

হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ নাহিদ সিরাজ জানান, তাকে ইনজেকশনের মাধ্যমে অচেতন ওষুধ শরীরে পুশ করা হয়েছে। স্বাভাবিক হতে এখনও দু’এক দিন সময় লাগতে পারে।থানা অফিসার ইনচার্জ রিফাত খান রাজিব বলেন, ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে নিখোঁজ ব্যক্তিকে উদ্ধার করা হয়েছে। সে সুস্থ্য হয়ে উঠলে তার শিকারোক্তিতে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে। উল্লেখ্য, গত সোববার সন্ধ্যায় চৌগাছা-মহেশপুর সড়কের মোল্লা ব্রিকস

সংলগ্ন সড়ক থেকে আশরাফুল ইসলাম নিখোঁজ হয়। সে উপজেলার চাঁদপাড়া গ্রামের মৃত ফকির চাঁদের ছেলে।

দেশদর্পণ/এমআই/এসজে