করোনা আতঙ্ক: ‘তালাবদ্ধ’ চীনের ১৪ শহর

আন্তর্জাতিক মহলে উদ্বেগ বাড়িয়ে চীনে করোনাভাইরাস ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছেন ৪১ জন। এছাড়াও নতুন এই ভাইরাসে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ২৮৭ জন আক্রান্ত হয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। এই ভাইরাসের কারণে চীনা নাগরিকরা চরম আতঙ্কে দিনাতিপাত কাটছেন।

এদিকে, করোনাভাইরাস আতঙ্কে হুবেইপ্রদেশের উহানসহ ১৪ শহরের প্রবেশদ্বার কার্যত ‘তালাবদ্ধ’ করে দিয়েছে চীন প্রশাসন। সরকারের নির্দেশানুয়ায়ী, বাইরের কেউ ভেতরে ঢুকতে পারবে না, শহরের ভেতরে থাকা কেউ বের হতে পারবে না।

এছাড়া কিছু শহরে সিনেমা হল, রেস্তোরাঁ, কারাওকে বারের মতো বিনোদন স্থানগুলোও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, সব ধরনের জমায়েতেই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে প্রশাসন। আজ ২৫ জানুয়ারি চীনা নববর্ষের অনুষ্ঠান, তাই বন্ধের মুখে।

চীনা নববর্ষের ছুটির মধ্যে দেশটির কোটি কোটি মানুষ একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্তে যাতায়াত করলে সংক্রমণ হু হু করে বাড়তে পারে বলেও কর্তৃপক্ষ আশঙ্কা করছে। শনিবার থেকে চীনে লুনার নিউ ইয়ারের সপ্তাহব্যাপী ছুটি শুরু হচ্ছে।
আরও পড়ুন: বিশ্বের নতুন আতঙ্ক `করোনা’ ভাইরাসের উৎস বিষধর সাপ!

ভাইরাসটির প্রতিরোধে চীনের অন্তত দুটো শহর সিলগালা করে দেয়া হয়েছে। ভাইরাসটির উৎপত্তিস্থল হুবেইপ্রদেশের এক কোটি ১০ লাখ নাগরিকের শহর উহানে সব গণপরিবহন চলাচল সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে।

শহরের বাসিন্দাদেরও শহর ত্যাগে নিষেধ করা হয়েছে। উহানের পাশেই প্রায় ৭৫ লাখ অধিবাসীর শহর হুয়াংগ্যাংয়েও বাস ও ট্রেন যোগাযোগ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করা হয়েছে।

এছাড়া নতুন এই ভাইরাসে ইতোমধ্যে দক্ষিণ কোরিয়া, থাইল্যান্ড, ফ্রান্স, যুক্তরাষ্ট্র ও জাপানে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

উল্লেখ্য, গত ডিসেম্বর চীনের উহান শহরে করোনাভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে। প্রতিনিয়ত এই ভাইরাসে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা।

দেশদর্পণ/এসজে