সুনামগঞ্জে ইভটিজিং প্রতিরোধে সড়ক অবরোধ

ইভটিজিং প্রতিরোধে ও বখাটেদের গ্রেফতারের দাবিতে সড়ক অবরোধ করেছে শিক্ষার্থীসহ সর্বস্থরের জনতা। ২ঘন্টার বেশী সময় অবরোধ করার পর সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কে বিক্ষোভ প্রত্যাহার করেছে বিক্ষোভকারীরা

মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টায় সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার লক্ষণশ্রী ইউনিয়নের নীলপুর বাজারে ১পর্যন্ত বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীদের অভিভাবক ও সাধারণ মানুষেরা।

জানা যায়, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার জমিরুন নূর উচ্চ বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থীকে লক্ষণশ্রী ইউনিয়নের অনহার, ইয়াহিয়া ও ছাব্বির নামে তিনজন প্রতিনিয়ত শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার সময় উত্যক্ত করতো। শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন সময় প্রতিষ্ঠানকে বিষয়টি জানালেও বখাটেরা শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন রকম হুমকি প্রদান করে। পরে ছাত্রীরা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি বিষয়টি জানালেও তিনি বিষয়টি দেখছেন বলেও কোন ব্যবস্থা না নেওয়া শিক্ষার্থীরা ক্ষোভে মঙ্গলবার সকালে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। এসময় শতাধিক যাত্রীরা সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের পাশে আটকা পড়েন।
আরও পড়ুন: যুদ্ধাপরাধ হয়েছে তবে গণহত্যার কোনো প্রমাণ মেলেনি রাখাইনে

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বলেন, আমরা বিদ্যালয়ে আসতে পারি না। আমাদের ইয়াহিয়া, ছাব্বির ও অনহার সব সময় সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের পাশে দাড়িয়ে থাকে। বিভিন্ন রকমের খারাপ মন্তব্য করে রাস্তায় চলাফেরা করতে গেলে। আমরা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটিকে বিভিন্ন সময় বলেছি কিন্তু তিনি কোন ব্যবস্থা নেননি। আমরা চাই এই বখাটেদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করা হোক।

এব্যাপারে লক্ষণশ্রী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াদুদ বলেন,ইতিমধ্যে পুলিশ ও প্রশাসনের সাথে আমার কথা হয়েছে তারা আমাকে সহযোগিতা করবেন বলে আশ্বাস প্রদান করেছেন।

সুনামগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (অপারেশন) মোঃ মঞ্জুর মোর্শেদ বলেন, শিক্ষার্থীদের আমরা আশ্বাস দিয়েছি দ্রæত সময়ের মধ্যে বখাটেদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবো। বখাটেদের বিরোদ্ধে কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় শিক্ষার্থীরা অবরোধে অংশ নেয়। এই বখাটেদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং ইতিমধ্যে অভিযান শুরু হয়ে গেছে। সেজন্য শিক্ষার্থীরা অবরোধ তুলে নিয়েছেন এবং সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কে যানবাহন চলাচল সচল হয়েছে।

দেশদর্পণ/জেএভি/এসজে