মাদক মামলায় নারীর যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানার মাদক মামলায় মালেকা খাতুন (৪২) নামে এক নারীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের বিচারক মো. মশিয়ার রহমান জনাকীর্ণ আদালতে আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত মালেকা খাতুন দৌলতপুর উপজেলার প্রাগপুর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী মহিষকুন্ডি পাকুড়িয়া গ্রামের গোলাম মোস্তফা মোল্লার স্ত্রী।

আদালত সূত্রে জানা যায়, দৌলতপুর থানা পুলিশ গোপন সূত্রের খবরের ভিত্তিতে ২০১৫ সালের ৬ এপ্রিল উপজেলার মহিষকুন্ডি পাকুড়িয়া এলাকায় নারী মাদক ব্যবসায়ী মালেকা খাতুনের বাড়িতে অভিযান চালায়। অভিযানকালে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সেখানে অবস্থানরত লোকজন পালিয়ে যান। সে সময় মালেকা খাতুনকে আটক করে তার শয়নকক্ষের বিছানা থেকে পলিথিনে মোড়ানো ৫০ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ব্যাপারে দৌলতপুর থানার এস আই মামুনুর রশিদ বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ২৪ মে আদালতে চার্জসিট দেয় পুলিশ।

কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের সরকারী কৌঁসুলি (এপিপি) আব্দুল হালিম সাংবাদিকদের জানান, দৌলতপুর থানার মাদক মামলাটিতে আসামি মালেকা খাতুনের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো এক বছর সাজার আদেশ দেন আদালতের বিচারক।