গৃহবধূকে গলাকেটে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা

লক্ষীপুরে প্রাকৃতিক ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হলে নাসরিন আক্তার (৩৪) নামে এক গৃহবধূকে গলাকেটে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। বুধবার (১৫ জানুয়ারি) ভোরে সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জের লতিফপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত নাসরিন একই গ্রামের প্রবাসী ফারুক হোসেনের স্ত্রী ও দুই সন্তানের জননী। এদিকে নাসরিনের মৃত্যুতে সদর হাসপাতাল এলাকায় স্বজনদের কান্নার রোল উঠে।

নাসরিনের স্বামী ফারুক ও ছেলে নাইমুল ইসলাম জানায়, মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) রাতে তারা তিনজন একই বিছানায় ঘুমিয়েছে। ফজরের আযানের পর নাসরিন ঘুম থেকে উঠে প্রাকৃতিক ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হয়। এসময় কে বা কারা তাকে গলাকেটে রক্তাক্ত জখম করে। চিৎকার শুনে তারা ঘর থেকে বের হলে এক ব্যক্তিকে পালিয়ে যেতে দেখতে পায়। তবে চেহারা দেখা যায়নি। পরে নাসরিনকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
আরও পড়ুন: বাবা ধারের টাকা শোধ করতে না পারায়…

লক্ষীপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) আনোয়ার হোসেন বলেন, নিহতের গলার নিচে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রচুর রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে। তবে কি দিয়ে আঘাত করা হয়েছে তা বলা যাচ্ছে না। ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে।

চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসিম উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল ও হাসপাতালে গিয়েছি। তবে কে বা কারা ঘটনাটি ঘটিয়েছে তা জানা যায়নি। এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে।

দেশদর্পণ/একে/এসজে