নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে নিয়ে উধাও শিক্ষক !

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় বাদাঘাট আইডিয়াল কিন্টারগার্টেন স্কুলের শিক্ষকের বিরুদ্ধে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে অপহরণ করার অভিযোগ উঠেছে। ওই শিক্ষকের নাম নজরুল ইসলাম (২৫)। তিনি উত্তর বড়দল ইউনিয়নের জালালপুর গ্রামের শামসুল হকের ছেলে ও এই স্কুলের পরিচালক কামরুল ইসলামের চাচাতো ভাই।

এ বিষয়ে ওই ছাত্রীর বাবা তাহিরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। স্কুলটি উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের কামরাবন্ধ গ্রামে অবস্থিত।

লিখিত অভিযোগে জানা যায়, তাহিরপুর উপজেলায় বাদাঘাট আইডিয়াল কিন্টারগার্টেন স্কুলের নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই ছাত্রীকে বিভিন্ন সময় নজরুল ইসলাম কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় নিজ বাড়িতে রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গেলে পূর্ব থেকে ওঁত পেতে থাকা নজরুল তাকে অপহরণ করে নিয়ে যান।

ওই ছাত্রী ফিরে আসতে দেরি হলে পরিবারের লোকজন বাড়ি আশপাশে খোঁজাখুঁজির পর বিভিন্ন স্থানে থাকা আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে খোঁজ করেও পাননি। পরে জানতে পারেন, নজরুল ইসলাম ওই ছাত্রীকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গেছেন।

ওই শিক্ষকের ভাই নুর আলম একই স্কুলে শিক্ষকতা করার সময় তার এক সহকর্মী শিক্ষিকাকে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে পালিয়ে নিয়ে বিয়ে করেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

ওই ছাত্রীর বাবা বলেন, আমার অল্পবয়সী মেয়েকে আইডিয়াল স্কুলের শিক্ষক নজরুল ইসলাম অপহরণ করেছে। আমি আমার মেয়েকে পেতে আইনের আশ্রয় নিয়েছি।

তাহিরপুর থানার ওসি আতিকুর রহমান জানান, এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।