মহামানবের প্রত্যাবর্তন

আজ ১০ জানুয়ারি। বাঙলার ইতিহাসে সোনার হরফে লেখা ঐতিহাসিক এক দিন। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস। বাহাত্তরের এইদিনে পাকিস্তানে দীর্ঘ কারাবাস শেষে সদ্য স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশের মাটিতে ফিরে আসেন স্বাধীনতা সংগ্রামের মহানায়ক, মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু।

দীর্ঘ নয় মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধে এক সাগর রক্তের বিনিময়ে বিজয় অর্জনের পর বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা মহামানব হয়ে ফিরে আসেন স্বাধীন স্বদেশ ভূমিতে। বাঙালি জাতির ইতিহাসে বঙ্গবন্ধুর এ স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিন অনন্য।

দিবসটি উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উদযাপনের ক্ষণগণনাও আজ থেকে শুরু হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) বিকেলে তেজগাঁও পুরাতন বিমানবন্দরে মুজিববর্ষের কাউন্টডাউন অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন।

এদিন গোটা দেশের সব সিটি করপোরেশনের ২৮ পয়েন্টে, বিভাগীয় শহর, ৫৩ জেলা ও দুই উপজেলা এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ রাজধানীর ৮৩টি পয়েন্টে কাউন্টডাউন ঘড়ি বসানো হবে। প্রতিটি জেলা, উপজেলা ও সকল পাবলিক প্লেসে একইসঙ্গে কাউন্টডাউন শুরু হবে।

কর্মসূচি: সকাল সাড়ে ৬টায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়, বঙ্গবন্ধু ভবনসহ সারাদেশে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। সকাল ৭টায় বঙ্গবন্ধু ভবনে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হবে। বিকেল ৩টায় জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা। এছাড়া প্রতিটি জেলা, মহানগর, উপজেলা, থানা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে আওয়ামী লীগ এবং এর সব সহযোগী সংগঠন নানা কর্মসূচির আয়োজন করবে।